Press "Enter" to skip to content

জিনজিয়াংয়ের জন্ম নিয়ন্ত্রণের লক্ষ্যে চীন, মুসলিম মহিলাদের পাঠানো হচ্ছে জেলে



নয়া দিল্লীঃ শিনজিয়াং প্রান্তে উইঘুর মুসলিমদের ব্যাপক হারে নিয়ন্ত্রণ করতে চলেছে। ওঁরা এবার উইঘুরদের জনসংখ্যা কমানোর ধান্দায় রয়েছে। আর এরজন্য উইঘুর মুসলিম মহিলাদের নিশানা করা হচ্ছে। তাঁদের গর্ভনিরোধক উপায় আপন করে নেওয়ার জন্য চাপ দেওয়া হচ্ছে। আর সেই উপায় আপন না করলে বিশাল জরিমানা এবং হাজত বাস করানো হচ্ছে।

চীনের আধিকারিকদের দ্বৈত চরিত্র সামনে এসেছে। তাঁরা দেশে হ্রাসপ্রাপ্ত জন্মহার রোখার জন্য চীনের বেশীরভাগ মহিলাকে বেশি করে সন্তান জন্ম দেওয়ার জন্য উৎসাহিত করছে। আরেকদিকে উইঘুরবহুল শিনিজিয়াং প্রান্তে মুসলিম মহিলাদের কম সন্তান জন্ম দেওয়ার জন্য চাপ দেওয়া হচ্ছে। যদিও, আধিকারিকরা দাবি করেছেন যে মহিলাদের গর্ভনিরোধক ডিভাইস লাগানো ব্যক্তিগত সিদ্ধান্তের উপর নির্ভর করে।

https://platform.twitter.com/widgets.js

কিন্তু সরকারের সূচনা আরও মিডিয়ার খবর অনুযায়ী, চীনের ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টি শিনিজিয়াং প্রান্তে জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণ করার জন্য বল প্রয়োগ করছে।

শিনজিয়াং প্রান্তের অনেক মুসলিম জানান যে, তাঁদের উপর চাপ সৃষ্টি করা হচ্ছে। যদি কোনও মহিলা একাধিক সন্তানের মা হয়, আর সে গর্ভনিরোধক প্রক্রিয়া আপন করার জন্য বারণ করে দেয়, তাহলে তাঁদের মোটা টাকার জরিমানা করা হয় আর তাঁদের জেলে ঢুকিয়ে দেওয়া হয়। জেল থেকে মুক্তি পাওয়া অনেক মুসলিম মহিলা জানান যে, তাঁদের উপর সেখানে অত্যাচার করা হয়। তাঁদের এমন ওষুধ দেওয়া হয় হাতে ‘পিরিওড” বন্ধ হয়ে যায়।

https://platform.twitter.com/widgets.js

উল্লেখনীয় বিগত কয়েকদশন ধরেই শিনজিয়াং প্রান্তে উইঘুর মুসলিমদের উপর অত্যাচার করছে চীন সরকার। সেখানকার আধিকারিকরা উইঘুরদের প্রায় নজরবন্দি করে রেখেছে। গোটা প্রান্তে অনেক ডিটেনশন ক্যাম্পও বানানো হয়েছে সেখানে লক্ষ লক্ষ উইঘুর মুসলিমদের বন্দিবস্তায় রাখা হয়েছে। চীনের এই পদক্ষেপের বিরুদ্ধে আমেরিকা সমেত অনেক দেশই আওয়াজ তুলেছে।