Press "Enter" to skip to content

ঝড়ের গতিতে চীন সীমান্তে পৌঁছে যাবে সেনা, সিকিমে প্রথম ডবল লেন টানেল তৈরি করছে মোদী সরকার

নয়া দিল্লীঃ ের () ১০ নম্বর ন্যশানাল হাইওয়ে () যেটা নাথুলা পাসের () দিকে যায়, সেখানে সিকিমের প্রথম ডবল লেন টানেল তৈরি হচ্ছে। রাষ্ট্রীয় রাজমার্গে তৈরি হতে চলা এই সুড়ঙ্গের দুই তরফ থেকে গাড়ি যাতায়াত করতে পারবে। এই টানেল তৈরি হয়ে গেলেই নাথুলা পাস পর্যন্ত যাওয়া সেনার বাহন আর গ্যাংটক পর্যন্ত যাওয়া সমস্ত পর্যটক বাহন গুলো ঘণ্টার পর ঘণ্টা জ্যামের হাতে রক্ষা পাবে।

সিকিমের চিশোপানি টানেল লেনে বিগত দুইমাস ধরে লাগাতার কাজ চলছে আর এই কাজ করছে ন্যশানাল হাইওয়ে ইনফ্রাস্ট্রাকচার ডেভলপমেন্ট কর্পোরেশন, আর আগামী ছয় মাসের মধ্যে এই টানেল তৈরি হয়ে যাবে। এরপরই এটি সিকিমের প্রথম ডবল লেন টানেল হবে, যেটি দিয়ে একই সময়ে দুটি লেনে গাড়ি চলতে পারবে।

এই প্রোজেক্টের সাথে যুক্ত ইঞ্জিনিয়ার জানান, এই রাস্তার পাথরের টেস্টিং আর রাস্তার সার্ভের কাজ আগেই হয়ে গিয়েছে। উল্লেখ্য, ন্যশানাল হাইওয়েতে এর আগেই একটি টানেল আছে, কিন্তু সেখান দিয়ে একটি সময়ে একটি করেই অথবা একদিকেরই গাড়ি যেতে পারে। আর এই কারণে সেনার বাহন অথবা আম জনতার বাহন যখন ভারত চীন সীমান্তের পাশে নাথুলা আর গ্যাংটক যায় তখন ঘণ্টার পর ঘণ্টা জ্যামের সন্মুখিন হতে হয়। এই টানেল তৈরি হয়ে গেলেই ন্যাশানাল হাইওয়েতে জ্যামের সমস্যার সমাধান হবে আর নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সেনার বাহন নিজেদের গন্তব্য স্থলে পৌঁছাতে পারবে।

বিগত দুই মাস ধরে ২৪ ঘণ্টা ডবল শিফটে এই টানেলের কাজ চলছে। এই টানেলটিকে আধুনিক পাইলিং টেকনোলজি দিয়ে বানানো হচ্ছে। এই ডোবল লেন টানেল তৈরি হওয়ার পর আগামী দিনে সিকিম সমেত অন্য দুর্গম এলাকায় এভাবেই টানেল বানানোর পরিকল্পনা নিয়েছে এই এজেন্সি।