Press "Enter" to skip to content

ড্রা’গস ও মেয়ে সাপ্লাইয়ের ব্যাবসা করে মহেশ ভাট! খোলাখুলি দাবি করলেন উনার পুত্রবধূ

মহেশ ভাটকে সকলে ফিল্ম নির্মাতা, সিনেমা পরিচালক হিসেবে চেনে। ভিন্ন ভিন্ন কারণে ের নাম বহুবার খবরের শিরোনামে এসেছে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে বিতর্কের জন্য ের নাম চর্চায় উঠে আসে। কখনো হিন্দি সিনেমায় নোংরা দৃশ্যের প্রদর্শন আবার কখনো নিজের মেয়ে পূজা ভাটের সাথে কিস করা নিয়ে লাইম লাইটে থেকেছেন।

আর এখন আরো একবার মহেশ ভাটকে নিয়ে জোর চর্চা শুরু হয়েছে। মহেশ ভাটের পুত্রবধূ পুত্রবধূ লুভিনা লোদ একটা বড়ো পর্দাফাঁস করেছেন। উনি মহেশ ভাট এর সম্পর্কে যা বলেছেন তা বেশ চাঞ্চল্যকর। মহেশ ভট্টের ভাইপো হলেন সুমিত সবরওয়াল, লুবিনা লোধ সুমিতের সাথে বিয়ে করেছিলেন। তবে লুবিনা বিবাহ বিচ্ছেদের জন্য প্রস্তুতি নিয়েছেন তথা এখন আদালতে মামলা করেছেন।

লুবিনা জানিয়েছেন যে তার স্বামী মেয়ে পাচার, ড্রা’গস পাচারে জড়িত তাই উনি ডিভোর্স চান। বিয়ের আগে লুবিনা এসব জানতেন না, এখন উনি স্বামীর কান্ড জানতে পেরেছেন। সুমিতের ফোন চেক করে লুভিন সব কিছু জানতে পারে বলে জানা গেছে। সুমিতের ফোনে ড্রা’গস পাচার থেকে শুরু করে মেয়ে পাচার সব প্রমান রয়েছে। আর এই কাণ্ডে মহেশ ভাটও জড়িত বলে দাবি তার।

https://platform.twitter.com/widgets.js

লুবিনার মতে, মহেশ ভাট ের বড়ো ডন এই সব পাচার কাজের পরিচালনা করে। মহেশ ভাট বহুজনের জীবন নষ্ট করে দিয়েছে বলেও দাবি লুবিনার। উনি আরো বলেন, মহেশ ভাটের শক্তি অনেকে তিনি তার পেছনেও লোক লাগিয়ে রেখেছে।