Press "Enter" to skip to content

তালিবানের সাথে হিন্দুত্বের তুলনা করেছিলেন স্বরা! পাল্টা ধুয়ে দিলেন রুদ্রনীল ঘোষ


ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করার অভিযোগে অভিনেত্রী স্বরা ভাস্করের বিরুদ্ধে ের সাইবার থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। লালবাজার সূত্রে প্রাপ্ত খবর, রাজ চৌধুরী নামে কলকাতার একজন ব্যক্তি সাম্প্রদায়িক উস্কানি ও হিংসা ছড়ানোর অভিযোগ তুলে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। বলিউড অভিনেত্রীর সোশ্যাল পোস্টের বক্তব্য ীয় তথা হিন্দুদের ভাবাবেগে আঘাত করেছে বলে অভিযোগ তোলা হয়েছে। তাঁর বক্তব্য, স্বরার এরকম বক্তব্য সমাজে নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে, যা মোটেও ভালো নয়। তাই তার বিরুদ্ধে অভিযোগ জানানো হয়েছে।

বিতর্কের সূত্রপাত ঘটেছে ১৭ তারিখ অভিনেত্রী স্বরার টুইটকে কেন্দ্র করে। তিনি বলেছেন, হিন্দুত্ববাদী সন্ত্রাসের সমালোচনা আমরা কখনো করি না। কিন্তু তালিবানি সন্ত্রাস দেখে আমরা রেগে যাই, ক্ষুব্ধ হই। তালিবানদের অমানসিক অত্যাচার দেখে আমরা গর্জে উঠছি। কিন্তু হিন্দুত্ববাদী সন্ত্রাস দেখে সময় আমরা চোখ বন্ধ করে থাকি। আমাদের মূল্যবোধ নির্দিষ্ট সন্ত্রাসকে সাপোর্ট করা উচিত নয়। এর আগেও আফগানিস্তান নিয়ে বিতর্কিত টুইট করেছিলেন স্বরা ভাস্কর। তালিবানদের ‘ক্ষুধার্ত শিয়াল’ বলে মন্তব্য করেছিলেন অভিনেত্রী। হিন্দুত্ববাদীদের সঙ্গে তালিবানের প্রসঙ্গ জড়িয়ে আইনি প্যাঁচে পড়লেন বলিউড অভিনেত্রী।

টুইটের উত্তরেই রুদ্রনীল পালটা প্রশ্ন করেছেন, তালিবান সন্ত্রাসের সঙ্গে হিন্দুধর্মকে স্বরা তুলনা করলেন কীকরে? অভিনেতার বক্তব্য, হিন্দুধর্মে কট্টর হিন্দুত্ববাদী আইন বলে কিছু নেই। রুদ্রনীলের , হয়তো স্বরা ভাস্কর দিবাস্বপ্ন দেখেছেন। এ ধরনের দিবাস্বপ্নই এদের মতো মানুষদের মানসিক পরিচয় বহন করে। এ সব বললে তাঁর বিরুদ্ধে যে বিরুদ্ধ জনমত তৈরি হবে, তা অত্যন্ত স্বাভাবিক।

এখানেই থামেননি তিনি। আফগানিস্তানের শরণার্থীদের ভারত জায়গা দেওয়া হবে কিনা সে প্রসঙ্গে অভিনেতার পালটা প্রশ্ন, শুধু আফগানিস্তান নয়, পৃথিবীর যে কোনো দেশের শাসকের সঙ্গে দেশবাসীর বিরোধের জায়গা তৈরি হলে ভারত তাদের থাকার জায়গা দেবে তো? স্বরা তাঁর বাড়িতে থাকতে দেবেন শরণার্থীদের?

অভিনেতার কাছে নিজ ধর্ম সবার আগে। অন‍্য ধর্মের প্রতি সম্মান আবেগ পরে দেখাবেন তিনি। কিন্তু কয়েকজন তথাকথিত মানবতাবাদী প্রগতিশীল মানুষ নিজের ধর্মকে তুচ্ছ জ্ঞান করে ইফতার পার্টিতে গিয়ে ছবি পোস্ট করেন। কিন্তু তিনি তাদের মতো কখনোই হতে চান না।

আফগানিস্তান ইস‍্যুতে বাংলাদেশি অভিনেত্রী জয়া আহসান মন্তব‍্য করেছেন, বাংলাদেশ, ভারত বা বিশ্বের যেকোনো দেশেই মহিলাদের উপর অত‍্যাচার হলে সরব হতে হবে। এ প্রসঙ্গে রুদ্রনীলের বক্তব‍্য, বাংলাদেশের বাসিন্দা হয়ে জয়ার এরকম আশঙ্কা অমূলক নয়।

বাংলাদেশ । ওদেশে হিন্দুদের সংখ‍্যা নামমাত্রে এসে পৌঁছেছে। সেখানে দিনরাত মন্দির ভাঙা হচ্ছে। এগুলো হিন্দু ও বৌদ্ধদের জন‍্য হুমকির সমান। তাঁর প্রার্থনা বিশ্বের কোনো দেশে যেন কট্টরপন্থী সন্ত্রাস না চলে, অচিরেই যেন শরিয়তপন্থীরা সমূলে উৎপাটিত হয়।