Press "Enter" to skip to content

তিন দশকের ইসলামিক শাসনকে সমাপ্ত করে প্রজাতান্ত্রিক হওয়ার পথে সুদান

[ad_1]

নয়া দিল্লীঃ সুদানের (Sudan) সরকার উত্তর আফ্রিকার রাষ্ট্রে ৩০ বছরের ইসলামিক শাসনের (Islamic Law) সমাপ্তি করিয়ে ধর্মকে আলাদা করার কথায় সহমত পোষণ করেছে। সুদানের প্রধানমন্ত্রী আবদুল্লাহ হমদোক আর সুদান পিপলস লিবারেশন মুভমেন্ট এর নেতা আবদুল আজিজ আল হিলু একটি ঘোষণাপত্রে স্বাক্ষর করেছেন। বৃহস্পতিবার ইথিয়োপিয়ার রাজধানী আদিস আবাবে দুজনে সহমত পোষণ করে ঘোষণাপত্রে স্বাক্ষর করেন।

ঘোষণা পত্রে লেখা আছে যে, সুদানকে গণতান্ত্রিক দেশ বানাতে হবে, সেখানে প্রতিটি নাগরিকের অধিকার সুনিশ্চিত করতে হবে, এখানে সংবিধানটি ধর্ম ও রাষ্ট্রের বিচ্ছিন্নতার নীতির ভিত্তিতে হওয়া উচিত। এর অনুপস্থিতিতে স্ব-সংকল্পের অধিকারকে অবশ্যই সম্মান করতে হবে। সরকারের তরফ থেকে বিদ্রোহী শক্তির সাথে শান্তি সমঝোতা শুরু করার পর এক সপ্তাহেরও কম সময়ে এই সমঝোতা শেষ হয়ে যায়। এই সমঝোতায় দাফুর আর সুদানের অন্য অংশ গুলো থেকে বেদখল করা স্বৈরাচারী শাসক উমর আল বাশিরের আরও লড়াই করার আশাও শেষ হয়ে গেলো।

সুদান পিপলস লিবারেশন মুভমেন্ট-নর্থ এর দুটি গোষ্ঠীর মধ্যে একটি এরকম ঘোষণাপত্রে স্বাক্ষর করবে না বলে জানিয়েছে যেটি ধর্মনিরপেক্ষ প্রণালীকে সুনিশ্চিত করে না। ১৯৮৯ সালে বাশিরের তরফ থেকে ক্ষমতা দখল করার পর সুদান আন্তর্জাতিক বিচ্ছিন্নতাবাদীদের সাথে যুক্ত হয়ে যায়। কিন্তু স্বৈরাচারী শাসককে দূরে সরিয়ে দেওয়ার পর থেকেই সুদান ধীরে ধীরে জীবনের মূল স্রোতে ফিরছে।

বাশিরের শাসনকালে আলকায়দা আর কার্লোস সুদানে ঘাঁটি গেড়েছিল, আমেরিকা ১৯৯৩ সালে সুদানকে সন্ত্রাসবাদের আঁতুড়ঘড় ঘোষণা করে আর ২০১৭ সালে এই দেশের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে দেয়। আপনাদের জানিয়ে দিই, কয়েক মাস আগেই সুদানে নারীদের খৎনা করাও নিষিদ্ধ ঘোষণা হয়েছিল।

The post তিন দশকের ইসলামিক শাসনকে সমাপ্ত করে প্রজাতান্ত্রিক হওয়ার পথে সুদান first appeared on India Rag.

[ad_2]