Press "Enter" to skip to content

ত্রিপুরায় তৃণমূলের উপর হামলা, মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবকে ‘জানোয়ার” বলে আক্রমণ দেবাংশুর

আগরতলাঃ বাংলায় ভোট শেষ হওয়ার পর এখন ত্রিপুরা দখলের লক্ষ্যে নেমেছে । আর সেই সুত্রেই একের পর এক তৃণমূল নেতা, নেত্রী ত্রিপুরার উদ্দেশ্যে রওনা দিচ্ছেন। এই সোমবারই আগরতলায় গিয়েছিলেন সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর আগে ডেরেক ওব্রায়েন, কাকলী ঘোষ দস্তিদার, ব্রাত্য বসু, দেবাংশু ভট্টাচার্যরা গিয়েছিলেন। এরপর কুণাল ঘোষও ত্রিপুরায় যান। সেখানে গিয়ে ত্রিপুরার রাজ পরিবারের সদস্যের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন।

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় কলকাতায় ফিরে এলেও সেখানে দেবাংশু, কুণাল ঘোষ সহ তৃণমূলের বেশ কিছু যুব নেতা-নেত্রী রয়েছেন। দেবাংশু কদিন আগেই দাবি করেছিলেন যে, তিনি ত্রিপুরার প্রতিটি জেলায় জেলায় খেলা হবে স্লোগান ছড়িয়ে দেবেন এবং ২০২৩-এর ে ত্রিপুরায় তৃণমূলকে ক্ষমতায় আসার পথ সুগম করবেন।

শনিবার তৃণমূলের যুব নেতা দেবাংশু, সুদীপ ও জয়া দত্তরা এলাকার পরিদর্শনে বের হন। আর সেখানেই বিরুদ্ধে তাঁদের উপর হামলা করার অভি ওঠে। ে লাইভ করে দেবাংশু সেই ঘটনার বিবরণ দেন। তিনি জানান যে, পাহাড় থেকে নামার সময় তাঁদের উপর পাথর ছোঁড়া হয়।

দেবাংশু লাইভে জানান যে, তাঁদের গাড়ির কাঁচ ভেঙে দেওয়া হয় পাথর ছুঁড়ে। সুদীপের মাথা ফাটিয়ে দেওয়া হয়েছে। জয়াও রক্তাক্ত হয়েছেন। দেবাংশু ত্রিপুরার পুলিশকে ঠুঁটো জগন্নাথ বলে আখ্যা দিয়ে অভিযোগ করে বলেন যে, এরা সবকিছু দেখেও কোনও পদক্ষেপ নিচ্ছে না। এমনকি দেবাংশু পুলিশের সামনে এও বলেন যে, আপনারা বলুন এখানে কেউ আসতে পারবে না, তাহলে আমরা এখানে সবাই মিলে আত্মহত্যা করছি।