Press "Enter" to skip to content

দমদমে মৃত দুই কিশোরীর পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দিতে গিয়ে বিপাকে পড়তে হল ব্রাত্য বসুদের


দমদমঃ দমদমের বান্ধবনগরে জমা জলে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা যায় দু কিশোরী। তাঁদের বাড়িতেই ক্ষতিপূরণ নিয়ে সমবেদনা জানাতেই গিয়েছিলেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু ও সাংসদ সৌগত রায়। সেখানে তাঁদের জনতার ক্ষোভে মুখে পড়তে হয়। অবস্থা বেগতিক দেখে সাংসদ ও মন্ত্রীকে তৎক্ষণাৎ সেখান থেকে সরিয়ে নিয়ে যায় নিরাপত্তারক্ষীরা।

মৃত দুই কিশোরীর পরিবার জানায়, তাঁদের দুই লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা বলেছিলেন সাংসদ ও মন্ত্রী। তাঁরা ওই ক্ষতিপূরণের টাকা নিতে অস্বীকার করে পাল্টা ৪ লক্ষ টাকা দেওয়ার কথা বলে। মৃতার পরিবার পাল্টা জানায়, আমরা ৪ লক্ষ টাকা দিচ্ছি আমাদের মেয়েদের ফিরিয়ে এনে দিন।

উল্লেখ্য, বুধবার সন্ধ্যাবেলায় অনুষ্কা নন্দী ও শ্রেয়া বণিক দুই বান্ধবী মিলে বাড়ির কাছেই জলমগ্ন একটি রাস্তায় বের হয়। সেখানে তাঁরা লাইটপোস্টে হাত দিতেই বিপত্তি ঘটে। হাত আটকে গিয়ে তাঁরা বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়। মুখ থেকে বের হতে থাকে ফেনা। তৎক্ষণাৎ তাঁদের উদ্ধার করে আরজি কর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকরা দুজনকেই মৃত বলে ঘোষণা করে। এরপর গোটা এলাকায় নেমে আসে শোকের ছায়া। পরিস্থিতি উত্তাল হতেই ঘটনাস্থলে মোতায়েন হয় পুলিশ।

ভবানীপুরের ের দিন 30 সেপ্টেম্বর ছিল শ্রেয়ার জন্িন। কিন্তু এবার আর তাঁর জন্মদিন পালন হবে না। এভাবে দুটি ফুটফুটে প্রাণ চলে যাওয়াতে যেমন শোকার্ত হয়েছে দুই পরিবার, তেমনই চোখের জল ফেলছে পাড়া, প্রতিবেশীরাও। মৃত দুই কিশোরীর পরিবারকে আজ সমবেদনা এবং ক্ষতিপূরণ দিতে গিয়েছিলেন মন্ত্রী ও সাংসদ। কিন্তু ক্ষোভের মুখে পড়ে তাঁদের এলাকা ছাড়তে হয়।