Press "Enter" to skip to content

দিদির রাজ্যে তালিবানি শাসন! পরকীয়া সন্দেহে বিধবা মহিলার সঙ্গে চরম বর্বরতা গ্রামবাসীর


বাংলায় থেকে ফের নারী অত্যাচারের কাহিনী উঠে এল। এর আগে উত্তরবঙ্গ থেকে আদিী মহিলার উপর নৃশংস ঘটনার কথা সামনে এসেছিল। এবার ক্যানিং থেকে উঠে আসছে অমানবীয় কাহিনী। সেখানে অবৈধ সম্পর্ক রাখার অভিে বিধবা মহিলাকে মারধোর করে তাঁর চুল কেটে নেওয়ার অভিযোগ উঠল স্থানীয়দের বিরুদ্ধে।

শুধু মারধোর বা মহিলার চুল কেটে নেওয়া না, এক যুবকের সঙ্গে ওই মহিলার জোর করে বিয়ে দেওয়ারও অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় মানুষদের বিরুদ্ধে। এই অমানবীয় ঘটনাটি ঘটেছে ক্যানিংয়ে ডাবুতে। সেখানে ওই বিধবা মহিলাকে মারধোর করে তাঁকে এবং ওই যুবককে মুচলেখা লিখিয়ে গ্রামছাড়া করারও অভিযোগ উঠেছে স্থানীয়দের বিরুদ্ধে।

নির্যাতিতা মহিলা অভিযোগ করে জানিয়েছে যে, স্বামীর মৃত্যু পর দুই সন্তানকে নিয়ে খুবই কষ্টে দিন কাটছিল তাঁর। স্বামী না থাকায় প্রতিবেশীরা বহুবার তাঁকে কুপ্রস্তাবও দিয়েছিল। সেই সময় গ্ের এক যুবক মহিলাকে আর্থিক সাহায্য করতে এগিয়ে আসে। যুবক ওই মহিলার পাশে দাঁড়ানোর পর গোটা গ্রামে তাঁদের মধ্যে অবৈধ সম্পর্ক রয়েছে তা রটিয়ে দেওয়া হয়।

এরপরই সালিশি সভা ডেকে মহিলার সঙ্গে জোর করে যুবকের বিয়ে দেওয়া হয়। এমনকি মহিলাকে মারধোর করে চুল কেটে গ্রাম থেকেও তাড়ানোর অভিযোগ ওঠে স্থানীয়দের বিরুদ্ধে।