Press "Enter" to skip to content

দিলীপ ঘোষকে সরিয়ে নতুন রাজ্য সভাপতি খুঁজছে বিজেপি, এই তরুণ সাংসদের নামে প্রস্তাব


কলকাতাঃ নতুন রাজ্য সভাপতি পেতে চলেছে বঙ্গ ি। দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh) পরপর দু’বার এই পদে ছিলেন। সংবিধান অনুযায়ী, একই পদে একজন ব্যক্তি দু’বারের বেশি থাকতে পারবেন না। তাই এবার দিলীপ ঘোষের বিদায় নিশ্চিত। এখন প্রশ্ন উঠছে যে, তাহলে বঙ্গ বিজেপির নতুন সভাপতি কে? সূত্রের খবর অনুযায়ী, বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডার (JP Nadda) কাছে বঙ্গ বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ তরুণ ের নাম প্রস্তাব করেছেন। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, ওই তরুণ সাংসদ হলে বালুরঘাটের বিজেপি সাংসদ সুকান্ত মজুমদার (Sukanta Majumdar)। যদিও, দিলীপবাবু এরকম কোনও প্রস্তাব দেওয়ার কথা সরাসরি নাকোচ করেছেন।

২০২২-র ডিসেম্বর মাসে দিলীপ ঘোষের রাজ্য সভাপতির মেয়াদ ফুরোচ্ছে। তাঁর আগেই নতুন নাম নিয়ে চর্চা শুরু হয়েছে। ২০১৮ সালে লোকসভা ের আগে দিলীপ ঘোষের প্রথম কার্যকাল শেষ হয়েছিল। তবে ভোটের মুখে নতুন কাউকে পদে বসানোর চেয়ে পুরনো সভাপতিকে দায়িত্ব দিয়ে এগিয়ে যাওয়ার ভাবনা ছিল বিজেপির। আর এই কারণে দিলীপবাবুকে দ্বিতীয়বার ওই পদে বসানো হয়।  

প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, ইতিমধ্যে বিজেপি দিলীপ ঘোষের উত্তরসূরী বাছার কাজ শুরু করে দিয়েছে। ের কাছ থেকেও এই নিয়ে মতামত চাওয়া হয়েছে। বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা দিলীপবাবুর কাছ থেকে এই বিষয়ে মতামত চেয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। আর এরপরই দিলীপ ঘোষ বালুরঘাটের সাংসদ সুকান্ত মজুমদারের নাম প্রস্তাব দিয়েছে।

সুকান্ত মজুমদার আরএসএসের ঘরের ছেলে। সংঘের সুপারিশেই তাঁকে ২০১৯-র লোকসভার টিকিট দেওয়া হয়েছিল আর সে জিতেও ছিল। ২০১৯ এর বিজেপিকে দু’হাত ভরিয়ে দিয়েছিল উত্তরবঙ্গ। একুশের েও উত্তরবঙ্গে বিজেপির সফলতার হার অনেক বেশি। আর সেই কারণেই উত্তরবঙ্গ থেকে নতুন সভাপতি বাছাই করে নিতে চাইছে বিজেপি।

এছাড়াও সদ্য কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী থেকে সরে আসা রায়গঞ্জের সাংসদ দেবশ্রী চৌধুরীর নামও উঠে আসছে। ক্যাবিনেটে রদবদলের সময় যাদের পদ থেকে সরানো হয়েছিল, তাঁদেরকে বড় দায়িত্ব দেওয়ার কথা আগেই উঠেছিল। আর সেই কারণে দেবশ্রী চৌধুরীর নামও বঙ্গ বিজেপির সভাপতি হওয়ার দৌড়ে উঠে আসছে।

যদিও সমস্ত জল্পনা উড়িয়ে দিলীপ ঘোষ বলেছেন, গত এক মাস জেপি নাড্ডার সঙ্গে ওনার কোনও কথাই হয়নি। তাই কারও নাম প্রস্তাব করার কোনও কথা নেই। বিজেপিতে এসব কিছুই হয় না। জল্পনা ছড়িয়ে আমাকে রোজই সভাপতি পদ থেকে সরানো হচ্ছে।