Press "Enter" to skip to content

দিলীপ ঘোষদের রগড়ে দিয়ে একে একে বিজেপি ছেড়ে পালাচ্ছে প্রাক্তন তৃণমূলীরা


মালদহঃ গতকাল শনিবার সাতগাছিয়ার প্রাক্তন তৃণমূল বিধায়ক তথা দাপুটে নেত্রী সোনালী গুহ তৃণমূলে ফিরে যেতে চেয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে কাতর আবেদন করেন। সেই ঘটনার ২৪ ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই আরও এক দলত্যাগি তৃণমূলে ফিরে যাওয়ার জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আবেদন জানিয়েছেন। তৃণমূলে ফিরতে চেয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে কাতর আবেদন জানিয়েছেন মালদহের বিজেপি নেত্রী সরলা মুর্মু। সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে সরলাদেবী বলেন, আমি নিজের ভুল বুঝতে পেরেছি তাই আবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে কাজ করতে চাই।

উল্লেখ্য, ের আগে অনেক -নেত্রী টিকিট না পেয়ে দল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন। কিন্তু সরলা মুর্মুর ক্ষেত্রে তা উল্টো হয়েছিল, তিনি টিকিট পেয়েও বিজেপিতে গিয়ে যোগ দেন। মালদহের হবিবপুর কেন্দ্রে সরলা মুর্মুকে প্রার্থী করেছিলের দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু প্রার্থীর ওই আসনটা ঠিক পছন্দ হয়নি। সরলা মুর্মু অন্য কেন্দ্র থেকে তৃণমূলের টিকিটে লড়তে চেয়েছিলেন, ওয়াকিবহাল মহলের মতে, সরলা মুর্মু ওই কেন্দ্রে নিজের হারের ভয়েই অন্য কেন্দ্র থেকে লড়তে চেয়েছিলেন। কিন্তু দল ওনাকে অন্য কেন্দ্রে সরিয়ে নিয়ে যায়নি। এরপরই সরলাদেবী আচমকাই কলকাতায় এসে বিজেপিতে যোগ দেন।

তবে বিজেপিতে যোগ দিয়েও ওনাকে নির্বাচনে তেমন কোনও ভূমিকা পালন করতে দেখা যায়নি। আর বিজেপির হারের পর এবার তিনি আবারও পুরনো দলে ফিরতে চেয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে আবেদন করেছেন। প্রসঙ্গত, ফলাফল ঘোষণার পর স্বয়ং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন যে, যারা আমাদের ছেড়ে চলে গিয়েছিল তাঁদের আমরা ফিরিয়ে নেব। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই মন্তব্যের পর অনেক পরাজিত দলত্যাগিদের গলায় উল্টো সুর শোনা যায়। আর সেই ক্রমে এবার যোগ দিলেন সরলাও।