Press "Enter" to skip to content

দীপাবলিতে আবেগঘন বার্তা দিয়ে জওয়ানদের জন্য দেশবাসীর কাছে বিশেষ আবেদন প্রধানমন্ত্রীর

[ad_1]

শ্রীনগরঃ প্রধানমন্ত্রী (Prime Minister) হওয়ার পর এই নিয়ে ৮ বার দেশের রক্ষাকর্তা ভারতীয় সেনার (Indian Army) জওয়ানদের সঙ্গে দীপাবলি পালন করছেন নরেন্দ্র মোদী (narendra modi)। এর আগে উনি ২০১৪ সালে সিয়াচেনে গিয়েছিলেন। ২০১৭ সালে তিনি কাশ্মীরের বান্দিপোরায় CRPF আর BSF জওয়ানদের সঙ্গে দীপাবলি পালন করেন। ২০১৯ সালে তিনি রাজৌরিতে দীপাবলি পালন করেছিলেন। ২০২০ সালে রাজস্থানের জয়সলমীরে সেনার জওয়ানদের সঙ্গে দীপাবলি পালন করেছিলেন তিনি।

জম্মু কাশ্মীরের রাজৌরি আর পুঞ্ছ জেলায় সীমান্তবর্তী এলাকাগুলোর ঘন জঙ্গলে জঙ্গিদের বিরুদ্ধে তিন সপ্তাহ ধরে অভিযান চালাচ্ছে ভারতীয় সেনা। আর এর মধ্যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সফর নিয়ে হাই অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে। ১১ অক্টোবর চমরেড়ের জঙ্গলে জঙ্গি হানায় পাঁচ জওয়ান প্রাণ হারিয়েছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জম্মু কাশ্মীরের নৌশেরা সেক্টরে পৌঁছে সেখানে জওয়ানদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। এরপর তিনি শহীদ জওয়ানদের শ্রদ্ধাঞ্জলিও দেন। নৌশেরায় প্রধানমন্ত্রী দেশবাসীকে উদ্দেশ্য করে বলেন, আজ সন্ধ্যায় একটি প্রদীপ জওয়ানদের ত্যাগ, পরাক্রম আর বীরতার নামে জ্বালান। প্রধানমন্ত্রী গোটা দেশবাসীকে আলোর এই উৎসবে শুভেচ্ছাও জানান।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন, দেশের সুরক্ষায় এখন মহিলারাও উচ্চতার শিখর ছুঁয়েছে। মহিলাদের এখন সেনায় স্থায়ী কমিশন দেওয়া হচ্ছে। প্রধান সৈন্য সংস্থার দরজাও এখন মহিলাদের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের জওয়ান মা ভারতীর সুরক্ষা কবচ। আপনাদের কারণেই দেশবাসীরা নিশ্চিন্তে ঘুমাতে পারে আর উৎসবে আনন্দ করতে পারে।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন, এখন প্রতিরক্ষা বাজেটের ৬৫% খরচ দেশের অস্ত্র কিনেই হচ্ছে। আজ আমাদের দেশ অর্জুন ট্যাঙ্ক বানাচ্ছে। তেজস এয়ারক্র্যাফটও দেশেই তৈরি করা হচ্ছে। বিজয় দশমীর দিনে ৭টি ডিফেন্স কোম্পানি দেশের নামে সমর্পিত হয়েছে।

[ad_2]