Press "Enter" to skip to content

দীর্ঘদিন বাংলাদেশের জেলে আটকে থাকা যুবককে ভারতে ফিরিয়ে আনলেন সাংসদ সুকান্ত মজুমদার


কলকাতাঃ পশ্চিমবঙ্গে ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে বেশ কয়েকটি জায়গায় দাপটের সঙ্গে জিতেছে এবং বলা বাহুল্য সেই সব জায়গাগুলোতে নির্বাচনের আগে থেকেই বিজেপি নেতৃবৃন্দ মানুষের মনে যে আশার আলো দেখিয়েছিল নির্বাচনে জিতে যাওয়ার পরও সেই কথা ধরে রেখেছে।

বালুরঘাটের বিজেপি সুকান্ত মজুমদারের তৎপরতায় বাংলাদেশ থেকে ফের বাড়ির মাটিতে পা দিলেন ওদেশে আটকে পড়া ভারতীয় নাগরিক মানিক দেবনাথ। অবৈধভাবে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের অভিযোগ ছিল তার বিরুদ্ধে। সাজাও হয়। কিন্তু তার সাজার মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ার পরেও তাকে কোনোভাবেই এদেশে ফেরানো যাচ্ছিল না। অবশেষে সাংসদ নিজে উদ্যোগ নিয়ে দেশে ফেরালেন তাকে।

সূত্র মারফত জানা গিয়েছে, দক্ষিণ দিনাজপুরের হিলি সীমান্ত সংলগ্ন ধরন্দা এলাকায় মানিক দেবনাথের। বাবা বিনোদ দেবনাথ পেশায় একজন কাঠমিস্ত্রী। মানিকও তার বাবার সঙ্গে একই পেশার সঙ্গে যুক্ত। পরিবারের বক্তব্য অনুযায়ী, ২০১৯ সালের ৮ মার্চ উত্তর ঘাসুড়িয়ার কাঁটাতারবিহীন এলাকা দিয়ে ভুলবশত বাংলাদেশে ঢুকে পড়ে মানিক। সেই জায়গায় বাংলাদেশ সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিবি-র নজরে পড়ে মানিক। তাকে করা হয়।‌ বাংলাদেশের দিনাজপুর জেলার একটি জেলে রাখা হয়েছিল তাকে। কিন্তু তার সাজার সময়কাল শেষ হলেও মানিককে কোনোমতেই ফিরিয়ে আনা যাচ্ছিল না।

এরপর অসহায় পরিবার বালুরঘাটের বিজেপি সাংসদ সুকান্ত মজুমদারের দারস্থ হন। সবকিছু শুনে সাংসদ নিজের উদ্যোগে বিদেশমন্ত্রকের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। সেখান থেকে চিঠিপত্র চালাচালি হয় ের সঙ্গে। এরপর রাজ্যের গোয়েন্দা বিভাগ ও বিএসএফ-এর আধিকারিক পর্যায়ে চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে পদক্ষেপ নিতে বলা হয়। অবশেষে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, ১৩ জুলাই বাংলাদেশ হিলির ইমিগ্রেশন চেকপোস্টে মানিককে পুরোপুরি ভারতের হাতে তুলে দেওয়া হবে।

এই বিষয়ে সাংসদ সুকান্ত মজুমদার বলেছেন, ‘মানিকের বাবা আমার সঙ্গে যোগাযোগ করে বছরখানেক আগে। মানিক বাইক নিয়ে ভুল করে বাংলাদেশে ঢুকে পড়েছিল। সেখানে তাকে ধরা হয় এবং তার সাজাও হয়। কিন্তু সাজার মেয়াদ শেষ হলেও তাকে দেশে ফেরানো যাচ্ছিল না বিবিধ আইনি জটিলতার জেরে। এরপর আমি বিদেশমন্ত্রকের সঙ্গে নিজে যোগাযোগ করি। তারা বিষয়টি নিয়ে এগোতেই করোনার প্রভাব শুরু হয়। ফলে বন্ধ হয় সীমান্তের ইমিগ্রেশান চেকপোস্ট। ফলে হস্তান্তর প্রক্রিয়া আরও পিছিয়ে যায়। তবে বিষয়টি নিয়ে বহু আলাপ আলোচনার পর দুই দেশের হাইকমিশন, বিএসএফ, বিজিবি ও জেলা প্রশাসন মিলে দিনক্ষণ চূড়ান্ত করা হয়।

তবে এটাই কিন্তু প্রথম নয়, এর আগেও বিদেশ থেকে দুই নাগরিককে ফিরিয়ে নিয়ে এসেছেন সুকান্তবাবু। মানুষের পাশে থাকার আশ্বাস দিয়ে সেই আশ্বাস রাখতে পেরে স্বভাবতই তিনি। অন্যদিকে সাংসদ সুকান্ত মজুমদারের উদ্যোগে মানিককে ঘরে ফিরে পেয়ে আপ্লুত তার পরিবারের লোকজন‌ও।