Press "Enter" to skip to content

দেশে করোনার দাপটের জন্য দায়ী বিজ্ঞান, অবিলম্বে স্কুল-কলেজ খোলার দাবি অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের


ঃ এখনও দ্বিতীয় তরঙ্গের বিপদ কাটিয়ে উঠতে পারেনি ()। রোজই ৪০ হাজারের বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। মৃতের সংখ্যাও দৈনিক ৫০০-র উপরে। আর এরই মধ্যে করোনার তৃতীয় ঢেউ উঁকি মারছে। পাশাপাশি করোনার ডেলটা ভ্যারিয়েন্টের আশঙ্কাও দিনদিন বেড়ে চলেছে। কেন করোনা মুক্ত হতে পারছে না ভারত? মানুষের অবহেলা? নাকি সরকারের ব্যর্থতা? এই নিয়ে যখন প্রশ্ন উঠছে, তখন নোবেলজয়ী অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায় (Abhijit Banerjee) বিজ্ঞানকেই এর জন্য কাঠগড়ায় তুললেন।

অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের মতে গোটা দেশকে ধন্দে ফেলেছে বিজ্ঞান। শুক্রবার সোনারপুর ইনস্টিটিউট অফ লিভার অ্যান্ড ডাইজেন্টিভ সায়েন্সের দৈনিক ডিজিটাল বিজ্ঞানের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অভিজিৎবাবু। তিনি সেখানে বলেন, বিজ্ঞানের মতেই কেন্দ্র প্রথম লকডাউন ডেকেছিল। এরপর বিজ্ঞানের মতেই ধীরে ধীরে লকডাউন তোলা হয়। বিধিনিষেধ শিথিল হওয়াতেই ফের করোনা নতুন করে চোখ রাঙানো শুরু করে। এই কারণেই তিনি মানুষকে ধন্দে ফেলার জন্য বিজ্ঞানকেই দায়ী করেছেন।

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের মতে করোনা রুখতে দুই অথবা তিনটি নয় অনুমোদিত আরও কিছু আনার দরকার রয়েছে। বেশি ভ্যাকসিন এলে টিকাকরণের গতিও বাড়বে বলে জানান তিনি। অভিজিৎবাবু টিকার অভাব নিয়ে রাজনৈতিক তরজা বন্ধ হওয়ার উচিৎ বলে জানিয়েছেন।

করোনার কারণে এক বছরের উপরে -কলেজ বন্ধ। আর এই নিয়েও সুর চড়ান নোবেলজয়ী । ওনার মতে স্কুল-কলেজ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত সঠিক নয়। আর এই কারণে প্রায়শ্চিত্ত হিসেবে দ্রুত স্কুল-কলেজ খুলে পঠনপাঠন শুরু করা হোক।