Press "Enter" to skip to content

নাড্ডার উপর হামলার বেলায় চুপ, ত্রিপুরায় বিক্ষোভের মুখে পড়তেই অভিষেক বললেন ‘গণতন্ত্র নেই”

আগরতলাঃ প্রতীক্ষার অবসান। অবশেষে ত্রিপুরায় (Tripura) পা রাখলেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় (Abhishek Banerjee)। তবে আগরতলায় পা রাখতেই চরম বিক্ষোভের মুখে পড়তে হয় তাঁকে। একুশে বাংলা জয়ের পর একদিকে যেমন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে করার তোড়জোড় চলছে তৃণমূলের অন্দরে, তেমনই ইন্যদিকে বাংলা ভাষী ত্রিপুরা রাজ্য থেকেও িকে উৎখাত করার লক্ষ্য নিয়ে নেমেছে তৃণমূল। আর সেই সুত্রেই আজ আগরতলায় গিয়েছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

সোমবার ত্রিপুরেশ্বরী মন্দিরে পুজো দিয়ে বাকি কর্মসূচি করার কথা ছিল অভিষেকের। তবে শুরুতেই ছন্দপতন। অভিষেকের কনভয় ঘিরে বিক্ষোভ দেখানো শুরু করে বিজেপির কর্মী-সমর্থকরা। অভিষেককে কালো পতাকা দেখানো থেকে শুরু করে তাঁকে উদ্দেশ্য করে ‘গো ব্যাক” স্লোগানও দেওয়া হয়। মুহূর্তের মধ্যেই উত্তেজনা ছড়ায় আগরতলায়।

তৃণমূল অভিযোগ করে বলেছে যে, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের যাত্রাপথে বিজেপির কর্মী-সমর্থকরা দফায় দফায় বিক্ষোভ দেখিয়েছে। বহু জায়গায় তাঁর কনভয়ও আটকে দেওয়া হয়েছে। এমনকি লাঠি দিয়ে গাড়িতে হামলা করারও অভিযোগ উঠেছে বিজেপির বিরুদ্ধে। তৃণমূলের তরফ থেকে এই ঘটনার একটি ভিডিও (Video) ছাড়া হয়েছে। এই ঘটনার পর ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবকে ট্যাগ করে একটি পোস্ট করেন অভিষেক। সেখানে তিনি লেখেন, ‘বিজেপির আমলে ত্রিপুরার গণতন্ত্র! রাজ্যকে নয়া উচ্চতায় পৌঁছে দেওয়ার জন্য বিপ্লব দেবকে ধন্যবাদ।”

https://platform.twitter.com/widgets.js

উল্লেখ্য, আজ আগরতলার ঘটনা ডায়মন্ড হারবারের স্মৃতি উস্কে দিল। একুশের নির্বাচনের আগে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সংসদীয় এলাকা ডায়মন্ড হারবারে যাওয়ার সময় বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডার গাড়িতে হামলা হয়েছিল। রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকা জনতা তৃণমূলের পতাকা হাতে জেপি নাড্ডার আগমনের বিক্ষোভ প্রকাশ করতে করতে হামলা করে।

কনভয়ে ছোঁড়া হয় ইট পাথর। পুলিশ উপস্থিত থাকলেও নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করেছিল। জেপি নাড্ডার গাড়ি বুলেটপ্রুফ হওয়ার কারণে কোনও ক্ষতি না হলেও, বাকি নেতাদের গাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। সেই সময় বিজেপিতে ছিলেন মুকুল রায়। ওনার গাড়িতেও হামলা চালানো হয়েছিল। একটি বড় ইট ওনার গাড়ির কাঁচ ভেদ করে ঢুকে পড়েছিল, এবং ওনার হাতে গুরুতর আঘাতও লেগেছিল।

ত্রিপুরাতে বিক্ষোভের মুখে পড়ে বিপ্লব সরকারকে তুলোধোনা করেছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি কটাক্ষ করে বলেন, ‘অতিথি ভবর নমুনা দেখলাম ত্রিপুয়ায় এসে। বিজেপি অভিযোগ করে যে, বাংলায় নাকি গণতন্ত্র নেই। কিন্তু এরাজ্যে কী হচ্ছে, সেটা দেখে না।”