Press "Enter" to skip to content

নাম-ধর্ম লুকিয়ে যুবতীকে ফাঁসিয়ে বিয়ে ও ধর্মান্তকরণ! গুজরাটে লাভ জিহাদ মামলায় প্রথম গ্রেফতারি

ভদোদরায়ঃ গুজরাট জোর করে অথবা প্রতারণা করে ধর্ম করার বিরুদ্ধে সম্প্রতি রাজ্যে লাগু হওয়া নিয়ম অনুযায়ী ২৬ বছরের এক যুবককে করেছে। অভিযুক্ত যুবক মুসলিম সম্প্রদায়ের হলেও সে নিজেকে পরিচয় দিয়ে একটি মেয়েকে প্রেম জালে ফাঁসিয়ে তাঁকে বিয়ে করে। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, ভদোদরায় গোত্রী পুলিশের কাছে অভি জমা পড়ার পর সমীর কুরেশি নামের এক যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাঁর বিরুদ্ধে জোর করে এবং প্রতারণা করে ধর্ম পরিবর্তন করানোর মামলা দায়ের করা হয়েছে।

পুলিশ কমিশনার জয়রাজ সিংহ জানান, অভিযুক্ত সমীর কুরেশি নিজের বাবার সঙ্গে একটি চালায়। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে যে, সে নিজেকে খ্রিষ্টান পরিচয় দিয়ে এক খ্রিষ্টান যুবতীকে নিজের প্রেমের জালে ফাঁসায়। সমীর কুরেশি ২০১৯ সাল থেকে ওই যুবতীর পিছনে পড়েছিল। সে নিজের নাম স্যাম মার্টিন বলে জানিয়েছিল যুবতীকে।

কমিশনার সংবাদমাধ্যমকে জানান, অভিযোগকারীনি অনুযায়ী, কুরেশি সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের পরিচয় গোপন করে তাঁকে প্রেম জালে ফাঁসায় এবং তাঁর সঙ্গে দুষ্কর্ম করে। এরপর অভিযুক্ত আপত্তিজনক ছবি তুলে যুবতীকে ব্ল্যাকমেল করা শুরু করে, পরে তাঁকে বিয়ে করতে বাধ্য করে। এমনকি কুরেশি ওই যুবতীকে একবার গর্ভপাতের জন্যও বাধ্য করেছিল।

পুলিশ আধিকারিকরা জানান, যুবতী তখনই ওই যুবকের ধর্ম জানতে পারে, যখন সে বিয়েত পিঁড়িতে বসে দেখে যে বিয়ে খ্রিষ্টান ধর্মানুসারে না হয়ে নিকাহর আয়োজন করা হয়েছে। বিয়ের পর কুরেশি ওই যুবতীর নামও বদলে ফেলে এবং জোর করে তাঁর ধর্মান্তকরণ করায়। এমনকি নির্যাতিতা যুবতীকে অভিযুক্ত যুবক তাঁর জাতপাত নিয়ে অশ্লীল কথা বলে।