Press "Enter" to skip to content

পঞ্জশির দখলের দাবি করা তালিবানের ৭০০ জঙ্গি নিকেশ, তল্পিতল্পা গুটিয়ে পালাল এলাকা ছেড়ে


নয়া আফগানিস্তানের উত্তর-পূর্ব পঞ্জশির উপত্যকায় আর রেজিস্টেন্স ফোর্সের মধ্যে ভয়ঙ্কর লড়াই চলছে। বিগত কয়েকদিন ধরে চলা এই খুনি সংঘর্ষের মধ্যে শনিবার পঞ্জশিরের বিদ্রোহীদের থেকে এলাকা ছিনিয়ে নিতে আসা তালিবানরা ব্যাপক মার খেয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। তালিবানদের কমপক্ষে ৭০০ জেহাদিকে নিকেশ করার দাবি করেছে প্রতিরোধ বাহিনী।

পঞ্জশিরের প্রতিরোধ বাহিনী দাবি করেছে যে, তাঁরা শনিবার তালিবানদের সঙ্গে লড়াইয়ে কমপক্ষে ৭০০ জেহাদিকে নিকেশ করেছে আর ৬০০ জনকে বন্দি বানিয়েছে। এর আগে পঞ্জশিরের নেতা আহমেদ মাসুদ বলেছিলেন, ‘মরে যাব, তবুও  আত্মসমর্পণ করব না।”

পঞ্জশিরের বিদ্রোহী গোষ্ঠীর অ্যাকাউন্ট অনুযায়ী, তালিবান তাঁদের হাতে মার খেয়ে এলাকা ছেড়ে পালিয়েছে। পঞ্জশিরের বিদ্রোহীদের নেতৃত্ব করা আহমেদ মাসুদ একটি অডিও বার্তার মাধ্যমে জানিয়েছেন যে, ৭০০-র বেশি তালিবানিকে নিকেশ করা হয়েছে আর ৬০০-র বেশি জেহাদিদের বন্দি বানানো হয়েছে। মাসুদ আরও বলেছেন, সবকিছু আমাদের পরিকল্পনা মাফিক চলছে। গোটা এলাকা আমাদের নিয়ন্ত্রণেই রয়েছে।

https://platform.twitter.com/widgets.js

উল্লেখ্য, এর আগে তালিবানরা দাবি করেছিল যে তাঁরা পঞ্জশিরে সম্পূর্ণ ভাবে নিয়ন্ত্রণ করে নিয়েছে। তালিবানরা এও দাবি করেছিল যে, আফগানিস্তানের কার্যবাহ রাষ্ট্রপতি অমরুল্লাহ সালেহ পঞ্জশির ছেড়ে পালিয়েছেন। যদিও, আলিবানের এই দাবির পর সশরীরে হাজির হয়েছিলেন খোদ সালেহ। তিনি একটি ভিডিও বার্তার মাধ্যমে বিশ্ববাসীকে আশ্বস্ত করেছিলেন যে, পঞ্জশিরে তালিবানরা এখন ঢুকতেই পারেনি আর তিনি এলাকা ছেড়ে পালান নি। তিনি মাটির রক্ষার জন্য পঞ্জশিরেই রয়েছেন আর থাকবেনও।