Press "Enter" to skip to content

পদের লোভ দেখিয়ে মোদীজিকে কংগ্রেস দলে টানতে চাওয়ায়, মোদীজি এমন উত্তর দিয়েছিলেন জানলে আপনিও অবাক হবেন।

[sg_popup id=”1″ event=”onload”][/sg_popup]এই ৪ বছরে দেশের প্রত্যেক ব্যাক্তিই খুব ভালোভাবেই আমদের মহাশয়কে েছেন। তাঁর মতো দৃঢ় ও দায়িত্ববান মানুষ খুব কমই দেখা যায় এখনকার দিনে। ভারতবাসী এই রকম প্রধানমন্ত্রী এর আগে কখন পেয়েছেন বলে আমার মনে পরে না। শুধু ভারতবাসী কেন পুরো বিশ্ব এই রকম নরম সহৃদয় সম্পন্ন মনের প্রধান মন্ত্রী আগে কোনো দিন পাইনি।। আমরা খুব ভাগ্যবান যে মোদীজির মতো একজন মানুষ কে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে পেয়েছি।
কিন্তু দুঃখের বিষয় হলো যে এই রকম একজন দেশপ্রেমিক প্রধানমন্ত্রী কে বিরোধীরা সু পেলেই আক্রমণ করছে। বিশেষ করে এবং বামম্পন্থিরা। যাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো কংগ্রেস। তারা মোদীজিকে আক্রমণ করতে কখন পিছু পা হয়নি। মোদি বিরোধীরা কখন কখন মোদীজিকে এতটাই খারাপ ভাষায় আক্রমণ করেছে যে এটা যদি অন্য কোনো দেশে হতো তাহলে এত দিনে বিরধীরা কঠিন সাজার মুখে পড়ত। কিন্তু আমাদের ের মতো সহিষ্ণুদেশের সহিষ্ণু
প্রধানমন্ত্রী হওয়ার জন্য সব কিছুই মাথা পেতে মেনে
নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

কিন্তু সব থেকে আবক করা বিষয় হলো যে কংগ্রেস আজ মোদিজীর এত বিরোধিতা করছে তারাই একদিন নরেন্দ্র মোদীকে নিজেদের দলে আমন্ত্রণ জানিয়ে ছিলেন।

আসলে তারা বুঝতে পেরেছিলেন মোদীজি ের মুখ্যমন্ত্রী হলে কংগ্রেসের বড়ো বিপদ হতে পারে। কারন সেই সময় মোদীজির হাত ধরে অনেক স্থায়ীয় নির্বাচনে জয় লাভ করেছিলেন। তাই সেই সময় কংগ্রেস মোদীজির সাথে ভাল ব্যাবহার করা শুরু করেন এবং মোদীজিকে নিজেদের দলে টানার চেস্টা করে। শুধু তাই নয় মোদীজি যখন বিজেপির সাধারন সম্পাদক ছিলেন তখন কংগ্রেসের বড়ো বড়ো নেতারা মোদীজিকে বিজেপি ছেড়ে কংগ্রেসে আসার জন্য আমন্ত্রণ করেন। কংগ্রেস নেতা জয়রাম রমেশ মোদীজিকে এক আলোচনা সভায় যা বলেছিলেন তা জানলে আপনারাও অবাক হবেন। জয়রাম বলেছিলেন, আপনি
বিজেপি ছেড়ে এলে কংগ্রেসে আপনার
জন্য পদ খালি রয়েছে এবং আপনি এখনে সম্মানের সাথে থাকবেন। অর্থাৎ কংগ্রেস মোদিজিকে বড় পদের লোভ দেখিয়ে নিজেদের দলে অন্তর্ভুক্ত করতে চেয়েছিল।

কিন্তু মোদীজি উনার প্রস্তাব প্রত্যাখান করেন। মোদীজি সেই সময় হেসে বলেছিলেন, আমি সংঘ(RSS) পরিবারের সদস্য। আমি কংগ্রেসে এলে আপনারা অনেক সমস্যায় পরবেন। কারন কংগ্রেস আর বিজেপির মতের মিল কোনো দিন এক হবে না। মোদীজি তার একটা উত্তরেই বুঝিয়ে দিয়েছিলেন যে তাকে লোভ দেখিয়ে কেনা সম্ভব নয় এবং এটাও বুঝিয়ে দিয়েছিলেন যে সঙ্ঘের নীতি দুর্নিতিমুক্ত দেশ যা কংগ্রেসে নীতির বাইরে।

তবে এটা মানতেই হবে যে দৃঢ় ব্যাক্তিত্বের নরেন্দ্র মোদী বিজেপি কে যে ভাবে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে তাতে শুধু কংগ্রেসই নয় ভারতের প্রতিটি রাজনৈতিক দলই বুঝতে পেরেছিল এতে তাদের খুব একটা সুবিধা হবে না। এর প্রমান ভারতীয় রাজনীতি পেয়েছে।

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.