Press "Enter" to skip to content

পরকীয়ার শাস্তি হিসেবে মারধোরের পর কেটে নেওয়ার হল মহিলার চুল, ফের বর্বরতার সাক্ষী রইল বাংলা


ময়নাগুড়িঃপ্রায় দিনই রাজ্যের চারিদিক থেকে মহিলাদের উপর নির্যাতনের ঘটনা সামনে আসছে। একদিন আগে আলিপুরদুয়ার জেলায় এক মহিলার সঙ্গে চরম বর্বরতার ঘটনা সামনে এসেছিল। পরকীয়ার শাস্তি হিসেবে ওই আদিবাসী মহিলাকে সালিশি সভায় নগ্ন করে মারধোর করা হয়। এরপর তাঁকে নগ্ন অবস্থায় গোটা গ্ে ঘোরানো হয় এবং সেই ঘটনার করে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেওয়া হয়।

আলিপুরদুয়ার কাণ্ডে গোটা রাজ্যে ছিঃ ছিঃ রব পড়ে গিয়েছে। আর সেই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই রাজ্য থেকে ফের নারী নির্যাতনের ঘটনার খবর সামনে আসছে। এবার জলপাইগুড়ি ময়নাগুড়িতে পরকীয়ার শাস্তি হিসেবে মহিলার চুল কেটে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে গ্রামবাসীদের বিরুদ্ধে।

প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, ময়নাগুড়ির আমগুড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের ভদ্রমোহন এলাকার বাসিন্দা ওই নির্যাতিতা। এলাকার এক যুবকের সঙ্গে বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ার অভিযোগ উঠেছে তাঁর বিরুদ্ধে। আর সেই ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই এলাকাবাসী চটে যায়। আলিপুরদুয়ারের মতো ময়নাগুড়িতেও মহিলাকে শাস্তি দিতে সালিশি সভা ডাকা হয়।

সালিশি সভা থেকে বাড়ি ফেরার সময় ওই মহিলা আর তাঁর স্বামীর উপর চড়াও হয় এলাকাবাসী। তাঁদের রাস্তাতে ধরে বেধড়ক মারধোর করা হয়। এরপর মহিলার স্বামীকে একটি গাছের সঙ্গে বেঁধে রাখায় বলে জানা যায়। হামলাকারীদের মধ্যে বেশীরভাগই মহিলা ছিল বলে জানা গিয়েছে। আর এরপরই ক্ষিপ্ত মহিলারা নির্যাতিতার মাথায় জল ঢেলে তাঁর চুল কেটে নেয়।

ঘটনার খবর প্রকাশ্যে আসতেই চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে গোটা এলাকায়। ঘটনাস্থলে পৌঁছায় পুলিশ। মহিলাকে নির্যাতনের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ ওঠে এলাকাবাসীর বিরুদ্ধে। পুলিশ ঘটনার তদন্তে নামলেও এখনও কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি।