Press "Enter" to skip to content

পরের দিন সূর্যের আলো দেখতে পাবে না পাকিস্তান- আমেরিকার রাষ্ট্রপতিকে বলেছিলেন অটলজি

২৬ শে জুলাই ১৯৯৯ এর দিন কখনো ের ইতিহাসে ভোলা যাবে না। এই দিনেই ভারতের সেনা পাকিস্তানের উপর বিজয় প্রাপ্তি করেছিল। অনেক উচ্চতায় লড়াই হয়েছিল, সুযোগ সুবিধা পাকিস্তানের কাছে বেশি ছিল। কিন্তু তা সত্ত্বেও বীরত্ব দেখিয়ে ভারতের সেনা কার্গিল যুদ্ধে জয়লাভ করেছিল। এই যুদ্ধে আমরা ৫২৭ জওয়ান হারিয়েছিলাম কিন্তু বলিদানি জওয়ানরা প্রাণ ত্যাগ করতে করতে ভারতকে জয়লাভ করিয়েছিল। আমেরিকার ভিক্ষা নিয়ে দেশ চালানো পাকিস্তানকে ভারতের সেনা তাদের আসল পরিচয় বুঝিয়ে দিয়েছিল।

অটলজির কড়া পদক্ষেপ, সেনার অদম্য সাহস ও বীরত্বের জন্য পাকিস্তানের সেনা মার খেয়ে ঘরে ফিরেছিল। অন্যদিকে ভারতের সেনা বিজয় পতাকা উড়িয়ে বিশ্বে নিজেদের পরাক্রমশালী শক্তির প্রভাব দেখিয়েছিল। সেই সময় একবার নওয়াজ শারিফ ও ক্লিনটনের মধ্যে বার্তা হয়েছিল।

শারীফ বলেছিলেন, আমার মনে হচ্ছে পাকিস্তানের সেনা ভারতের উপর পরমাণু হামলা করতে পারে। শারিফের কথা শুনে ভারতকে সাবধান করতে তৎকাল বাজপেয়ীকে ফোন করেছিলেন ক্লিনটন। পাকিস্তান সেনার পরিকল্পনা নিয়ে অটলজিকে বলেছিলেন ক্লিনটন। কিন্তু উত্তরে প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারী বাজপেয়ী যা বলেছিলেন তা চমকে দেওয়ার মতো।

অটল বিহারী বাজপেয়ী বলেছিলেন- “পাক সেনারা পরমাণু আক্রমনে ভারতের কিছু হবে না। কিন্তু এটা নিশ্চিত যে পরের দিন পাকিস্তান আর সূর্য দেখতে পাবে না।” অটল বিহারী বাজপেয়ী সেই সময় সাহসিকতার সাথে আমেরিকার রাষ্ট্রপতিকে জবাব দিয়েছিলেন। বাজপেয়ী বুঝিয়ে দিয়েছিলো যে ভারত যে কোনো কঠিন সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য প্রস্তুত রয়েছে।

এমনকি বিশ্বের ভূগোল ম্যাপ পরিবর্তন করতেও ভারত পিছুপা হবে না তা তিনি নিজের কথার মাধ্যমে বুঝিয়ে দিয়েছিলেন। আসলে এতদিন ভাততের পরিচয় বিশ্বে দুর্বল নেতৃত্ব শক্তি ও গান্ধীর দেশ হিসেবে ছিল। গান্ধীর দেশ যা শুধু অহিংসার পথে চলে। কিন্তু অটলবিহারীর নেতৃত্বে ভারত বিশ্বে তার পরিচয় সম্পূর্ণভাবে বদলানোর পথে পা বাড়িয়েছিল।