Press "Enter" to skip to content

পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেসকে মাত দিতে নতুন মাস্টারপ্ল্যান আনতে চলেছে বিজেপি।

বিজেপি এমন একটা দল যাদের চিন্তাভাবনা অন্যান দলের থেকে একটু আলাদা রকম। আসলে বিজেপি একটা রাজনৈতিক দল যারা সবসময় কিছু না কিছু নতুন করে অবাক করে দেয়। উদহারণসরূপ, অটল বিহারি বাজপেয়ী এর আমলে মানুষ চিন্তা করতো বাজপেয়র পর বিজেপিকে কে নেতৃত্ব দেবে? বিজেপি আবার একজন শক্তিশালী নেতা কোথায় পাবে? কিন্তু সকলকে অবাক করে বিজেপি নরেন্দ্র মোদীজিকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে উত্থান করে।

অন্য দিকে ভারতের রাষ্ট্রপতি কে হবেন, এই বিষয়ে কোনো নিউজ মিডিয়া তো দূর কোনো রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরাও আন্দাজ করতে পারেননি। সকলকে অবাক করে বিজেপি সেইসময় রামনাথ কোবিন্দকে আনে।
ভারতবর্ষে কোনো রাজনৈতিক দল ভাবতে পারেনি যে ত্রিপুরায় বিজেপি জিততে পারবে কারণ আগের নির্বাচনে বিজেপি ভোট পেয়েছিল মাত্র ২%। কিন্তু সেই সময় বিজেপি সুনীল দেওধরকে এমনভাবে ত্রিপুরার দায়িত্বে আনেন যে ত্রিপুরার রাজনীতির সমীকরণ পুরোপুরি বদলে যায় এবং বিপুল ভোট জয়ী হয়ে সরকার গঠন করে বিজেপি।

আর সেইরকমভাবে আরো এক চমক দিতে চলেছে বিজেপি। আসলে বিজেপি এবার পশ্চিমবঙ্গে নিজেদের খুঁটি মজবুত করতে এক বিশেষ ব্যাক্তিকে আনতে চলেছে। মক্কা মদিনা বোম ব্লাস্ট কান্ডে যাদের হিন্দু আতঙ্কবাদী তকমা বিনা কারণে মামলা দিয়েছিল তাদেরই একজনকে এবার পশ্চমবঙ্গে বিজেপির ঘাঁটি শক্ত করার জন্য আনা হবে জানা গেছে। আপনাদের জানিয়ে রাখি মক্কা মদিনা কান্ডের উপর আদালত জানিয়েছে যেসব হিন্দুদের গ্রেপ্তার করা হয়েছিল তারা সকলেই নির্দোষ। এই হিন্দুদের মধ্যে একজন ‘স্বামী অসীমানন্দকে’ রাজ্যে আনতে চলেছে বিজেপি।

একজন সন্ত যিনি আরএসএস এর একজন পুরোনো কার্যকর্তা। ওনাকে ২০০৭ সালে মক্কা মদিনা বিস্ফোরক মামলায় বিনা কারণে ২০১০ সালে গ্রেপ্তার করিয়েছিল কংগ্রেস। সম্প্রতি প্রমাণ হয়েছে উনি সম্পুর্ন নির্দোষ ব্যাক্তি। আপনাদের জানিয়ে রাখি, একজন আদর্শ প্রতিবাদী যিনি পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জীর বিরুদ্ধে বিজেপির হয়ে মাঠে নামতে চলেছেন।
আসলে বিজেপি স্বামীজিকে রাজনীতিতে এনে একসাথে দুটো পাখি মারতে চলেছেন এক কংগ্রেস আরেক তৃণমূল কংগ্রেস। কংগ্রেস হিন্দুদের আতঙ্কবাদী তকমা দিতে চেয়েছিল, অন্যদিকে তৃণমূল কংগ্রেস এক সম্প্রদায়ের তোষণে মেতে আছে। তাই স্বামী অসীমানন্দকে কাজে লাগিয়ে এই দুই দলকেই সাফ করতে চাইছে পশ্চিমবঙ্গ থেকে বিজেপি। জানা গেছে এই পুরো বিষয়টি বিজেপি রাষ্ট্রীয় সভাপতি অমিত শাহ এর নেতৃত্বে সম্পন্ন হতে চলেছে
রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, বিজেপি সঠিক সময়ে সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ওই সিদ্ধান্ত যে বিজেপিকে নিশ্চিত জয়ী করবে এ ব্যাপারেও আশাবাদী বিশেষজ্ঞরা।

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.