Press "Enter" to skip to content

পশ্চিমবঙ্গে রাষ্ট্রপতি শাসন লাগু না হলে আমি এই চিতায় আত্মদাহ করবো, ভীষণ প্রতিজ্ঞা এক সন্ন্যাসীর


পশ্চিমবঙ্গে ার্জীর সরকার পুনরায় ক্ষমতায় এসেছে। তবে তৃণমূল কংগ্রেস জয়লাভের পর থেকে পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি কর্মীদের উপর অকথ্য অত্যাচার শুরু হয়েছে। বহু বিজেপি কর্মীর বাড়ি ঘর পুড়িয়ে ছা করে দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও খুন ও ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে মমতা ব্যানার্জীর পার্টির বিরুদ্ধে। পশ্চিমবঙ্গের এমন পরিস্থিতির জন্য অনেকেই রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসন লাগু করার দাবি তুলেছিলেন।

এখন পশ্চিমবঙ্গে রাষ্ট্রপতি শাসন লাগুর দাবি জানিয়ে ভীষণ প্রতিজ্ঞা করেছেন এক ধৰ্মগুরু। মহন্ত পরমহংস দাস প্রতিজ্ঞা করেছেন যে যদি ২৪ মে তারিখের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গে রাষ্ট্রপতি শাসন লাগু না করা হয় তবে ২৫ শে মে তিনি আত্মদাহ করবেন। পরমহংস দাস এক চিতার সামনে দাঁড়িয়ে বলেছেন, আমি দেশবাসীকে বলতে চাই যদি পশ্চিমবঙ্গে রাষ্ট্রপতি শাসন লাগু না করা হয় তবে তিনি চিতায় নিজেকে জ্বালিয়ে দেবেন।

মহন্ত বলেন, দেশের সংবিধান বাঁচাতে, দেশের মানুষকে বাঁচাতে আমি এই ভীষণ প্রতিজ্ঞা নিয়েছি। পশ্চিমবঙ্গে বহু মানুষের হত্যা হয়েছে এবং মমতা ব্যানার্জী পরিকল্পনা করে এই হত্যা করাচ্ছেন। জেপি নাড্ডার গাড়ির উপর হামলা হয়েছিল, হিংসার পর্যবেক্ষণ করতে যাওয়া মন্ত্রীদের উপরেও হামলা হয়েছিল। যদি একজন মন্ত্রীর উপর ের উপস্থিতিতে হামলা হয় তাহলে সাধারণ জনগণের কি অবস্থা হবে।

পরমহংস দাস আরো বলেন, পশ্চিমবঙ্গের পরিস্থিতি ১৯৪৬ সালের গ্রেট ক্যালকাটা কিলিংয়ে মতো হয়েছে। যেহেতু আমি সংবিধানের সন্মান করি তাই এটা বলতে পারছি না যে দেশবাসী তুলে রোহিঙ্গাদের সমাপ্ত করে দাও। তাই আমি আদরণীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কাছে অনুরোধ করছি যে পশ্চিমবঙ্গে রাষ্ট্রপতি শাসন লাগু করুন।

https://platform.twitter.com/widgets.js

প্রধানমন্ত্রী মোদীর কাছে অনুরোধ জানিয়ে পরমহংস দাস বলেন, যাদের লোকজন মারা গেছে তাদের এক ও সরকারি চাকরি দেওয়া হোক। একই সাথে যাদের বাড়ি ঘর পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে তাদের বাড়ি নির্মাণ করে দেওয়া হোক।