Press "Enter" to skip to content

পাঁচ দিনের পুলিশি রিমান্ডে শারজিল ইমাম, চিকিৎসা হবে দেশদ্রোহীতার

দেশদ্রোহের অভিযোগে অভিযুক্ত শারজিল ইমামকে (Sharjeel Imam) ২৮ জানুয়ারি দিল্লী বিহার থেকে স্পেশ্যাল অভিযান চালিয়ে করে। এরপর বুধবার ২৯ জানুয়ারি দিল্লীর আদালতে তাঁকে পেশ করা হয়। এরপর আদালত তাঁকে পাঁচ দিনের পুলিশি রিমান্ডে পাঠানোর নির্দেশ দেয়।

https://platform.twitter.com/widgets.js

আপনাদের জানিয়ে রাখি, দিল্লী পুলিশের ক্রাইম ব্রাঞ্চ শারজিল ইমামকে বিহারের জাহানাবাদের কোকো থানা এলাকা থেকে গ্রেফতার করে। এই অভিযানে স্থানীয় পুলিশও দিল্লী পুলিশের ক্রাইম ব্রাঞ্চের টিমের সাথে ছিল। শারজিল ইমামকে গ্রেফতার করা পুলিশের টিমের নেতৃত্বে ছিলেন ডিসিপি ক্রাইম ব্রাঞ্চের রাজেশ দেব।

উল্লেখ্য, কিছুদিন আগেই শারজিল ইমামের এক বিতর্কিত ভাইরাল হয়, যেখানে সে আসাম সমেত পুর্বত্তরের রাজ্য গুলোকে ভারত থেকে ভাগ করার হুমকি দিয়েছিল। সে বলেছিল, মুসলিমরা নিজেদের শক্তি দেখিয়ে কমপক্ষে এক মাসের জন্য ভারত থেকে অসমকে আলাদা করে দিতে পারে। এই ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর থেকেই জেএনইউ এর শারজিল ইমাম পলাতক ছিল। সুত্র অনুযায়ী, সে বিহারের রাস্তা দিয়ে নেপালে পালিয়ে যাওয়ার ছক কষছিল।