Press "Enter" to skip to content

পাকিস্তানকে গ্রে লিস্ট থেকে বের করার জন্য শুধুমাত্র তুরস্ক দিল সঙ্গ, ৩৮ টি দেশের কাছে খেলো সপাটে চড়


নয়া দিল্লীঃ ফাইন্যান্সিয়াল অ্যাকশন টাস্ক ফোর্স () আরও একবার পাকিস্তানকে () ধূসর তালিকায় ফেলে দিয়ে ইমরানের () দেশকে বড়সড় ঝটকা দিল। ৩৯ টি দেশের মধ্যে ৩৮ টি দেশই পাকিস্তানকে বুড়ো আঙুল দেখিয়েছে। শুধুমাত্র তুরস্কই () পাকিস্তানকে ধূসর তালিকা থেকে বের করার জন্য ওকালতি করেছে।

আর তুরস্কের মধ্যে বন্ধুত্বের আসল কারণ হল ইসলামিক বিচারধারা। তুরস্ক পাকিস্তানকে সাথে নিয়ে ইসলামিক বিশ্বে সৌদি আরবের জায়গা নিতে চাইছে। তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী এরদোগানের নেতৃত্বে তুর্ক সাম্রাজ্যের ঐতিহ্য আবারও জীবিত করার চেষ্টা করা হচ্ছে।

মধ্য-পূর্বে গবেষণা করা এক বিশেষজ্ঞ জানান, ইরাক, সিরিয়া থেকে লিবিয়া আর আজারবাইজানে তুর্কি সমস্যা সৃষ্টি করতে চাইছে। তুর্কি পাকিস্তানের সাথে হাত মিলিয়ে ইসলামিক বিদ্রোহীদের সংগঠিত করে বিশ্বের বিভিন্ন অংশে হিংসা, অস্থিরতা আর অশান্তি সৃষ্টি করার চেষ্টা চালাচ্ছে।

FATF পাকিস্তানকে ২০১৮ এর জুন মাসে ধূসর তালিকায় ফেলেছে। আর ইসলামাবাদকে সন্ত্রাসবাদী সংগঠন গুলোকে আর্থিক মদত দেওয়ার থেকে আটকাতে ২৭ টি বিন্দুতে কার্যযোজনা ২০১৯ এর মধ্যে লাগু করার নির্দেশ দিয়েছিল। পাকিস্তান এই কাজে ব্যর্থ হওয়ার পরেও করোনা মহামারীর কারণে এই মেয়াদ বাড়িয়েছিল FATF।

ভারত গোটা বিশ্বের সামনে পাকিস্তানের মুখোশ খুলে দিয়ে বলেছিল যে, ২৭ টি বিন্দুর মধ্যে শুধু ২১ টি বিন্দুতেও কাজ করেছে ইমরানের দেশ। আর সেখানে এখনো সন্ত্রাসবাদীদের আশ্রয় এবং আর্থিক সাহাজ্য করা হয়। ভারত অভিযোগ করে বলেছিল যে, সংযুক্ত রাষ্ট্রের তালিকায় যুক্ত জইশ এর প্রধান আর দাউদ ইব্রাহীমের মতো জঙ্গিদের বিরুদ্ধে ব্যর্থ হয়েছে পাকিস্তান।