Press "Enter" to skip to content

পাকিস্তানকে নিয়ে বড়ো ঘোষণা দিল তালিবান! মুখে হাসি ফুটলো ইমরানের


১৫ অগাস্ট তালিা গোটা আফগানিস্তানের দখলে নিয়েছে। যদিও অনেকে মনে করেন, এর পিছনে রয়েছে খানের দেশ । কিন্তু সে কথা পাকিস্তান সরাসরি স্বীকার করেনি। তবে জল্পনা যে মিথ্যা নয় সেকথা মুখপাত্র জাবিউল্লা মুজাহিদ কিছুটা হলেও স্বীকার করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, তালিবানদের সঙ্গে পাকিস্তানের ভালো সম্পর্ক।

পাক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তালিবান মুখপাত্র বলেছেন, পাকিস্তান আমাদের দ্বিতীয় বাড়ি। পাকিস্তানই তালিবানদের জন্ম দিয়েছে। তিনি প্রকাশ্যে একথাও বলেছেন, আফগানিস্তানের সীমান্ত দেশ পাকিস্তান। ধর্মের দিক থেকে এই দু দেশ ঐতিহ্যগত ভাবে সম্পর্কযুক্ত। দুই দেশের মধ্যে পারস্পরিক সম্পর্ক ভাল। সেজন্য আমরা আগামী দিনে পাকিস্তানের সঙ্গে মজবুত সম্পর্ক তৈরি করতে চাই।

তালিবান-পাক দ্বৈরথ বিশ্বের অন্যান্য দেশগুলির কাছে সুখকর নয় তা খুব ভালো করেই বোঝা যাচ্ছে। তালিবানের এই ঘোষণায় স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেছে পাকিস্তান কারণ তারা প্রথম থেকেই ভারতের ক্ষতি করার আপ্রাণ চেষ্টা করে চলে এসেছে এবং পাকিস্তান নেত্রী নীলম ইরশাদ সে ভাবনায় শিলমোহর দিয়েছে। আর ‌ ঠিক এজন্য তালিবান রাজ প্রতিষ্ঠার পর থেকেই চিন্তিত বহু দেশ। ক্ষমতা দখলের পর তালিবানরা প্রথমে জানিয়েছিল তারা বদলে গিয়েছে। কিন্তু সময়ের সঙ্গে সঙ্গে বোঝা যাচ্ছে তালিবান রয়েছে তালিবানেই। বরং আগের থেকেও অনেক বেশি ভয়ঙ্কর হয়ে উঠেছে।

নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞরা আগেভাগেই জানিয়েছিলেন, তালিবানের ক্ষমতা দখলে লাভবান হয়েছে পাকিস্তান। এমনকি এটাও আশঙ্কা করা হয়েছে বিশ্বে সন্ত্রাসবাদ ছড়িয়ে দিতে এবার আফগানের মাটিকে সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপের জন্য ব্যবহার করবে পাকিস্তান। শুধু তাই-ই নয় লস্কর, জইশ-এর মত নিষিদ্ধ ইসলামিক গোষ্ঠীগুলিও আফগানিস্তানে নিজেদের ঘাঁটি তৈরি করছে।