Press "Enter" to skip to content

পাকিস্তানে আবারও হিন্দু মন্দিরে ভাঙচুর চালাল উন্মাদীরা! বাইরে ছুঁড়ে ফেলল গণেশের মূর্তি


নয়া পাকিস্তান (Pakistan) থেকে আরও একবার হিন্দু মন্দিরে ভাংচুরের ঘটনা সামনে এসেছে। এই ঘটনা পাকিস্তানের করাচি শহরের ভীমপুরায় হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। সেখানে একটি প্রাচীন হিন্দু মন্দিরকে ভেঙে তছনছ করে ফেলেছে ধার্মিক মৌলবাদীরা। মন্দিরে থাকা হিন্দু দেবদেবীর মূর্তি মন্দির থেকে বের করে ছুঁড়ে ফেলা হয়েছে। এর সাথে সাথে মন্দিরে থাকা সমস্ত কিছু তছনছ করে দেওয়া হয়েছে।

পাকিস্তানের মানবাধিকার কর্মী রাহত অস্টিন ট্যুইট করে এই খবর জানান। উনি জানান যে, ২০ দিনের মধ্যে এটা তৃতীয়বার মন্দিরে ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। এর সাথে সাথে উনি প্রশ্ন উঠেছে যে, এরা ফ্রান্স নিয়ে প্রতিবাদ জানাচ্ছে, নিজদ ধর্মের প্রতি সন্মান জানানোর দাবি করছে, আর এরাই অমুসলিমদের উপর অত্যাচার করছে।

এই ঘটনায় কট্টরপন্থীরা হিন্দুদের দায়ি করেছে। তাঁরা এক হিন্দু কিশোরের উপরে পয়গম্বর মোহম্মদের অপমান করার অভিযোগ তুলেছে। আর পয়গম্বরের অপমান করার কারণে কট্টরপন্থীরা এই কাজ করেছে বলে জানিয়েছে। যদিও স্থানীয় হিন্দুরা জানিয়েছে যে, কট্টরপন্থীদের দ্বারা করা সমস্ত অভিযোগ ভিত্তিহীন। তাঁরা জানান, কিছু সমাজ বিরোধী তাঁদের সাথে প্রতারণা করেছে। জানিয়ে দিই, পাকিস্তানে বিগত ২০ দিনে হিন্দু মন্দিরে ভাঙচুর চালানোর এটি তৃতীয় ঘটনা।

https://platform.twitter.com/widgets.js

পাকিস্তানে রোজ রোজই অমুসলিমদের উপর অত্যাচারের কাহিনী সামনে আসে। গত সেপ্টেম্বর মাসে পাকিস্তানের সিন্ধু প্রান্তে ১৭১ জন হিন্দুকে করার মামলা সামনে এসেছিল। পাকিস্তানের মানবাধিকার কর্মী রাহত অস্টিন এই মামলা নিয়ে এর আগেও সরব হয়েছিলেন।