Press "Enter" to skip to content

পাকিস্তানে চাকরির জন্য হাহাকার, ক্লার্কের একটি পদের জন্য আবেদন ১৫ লক্ষ শিক্ষিত বেকারের

[ad_1]

নয়া দিল্লিঃ ভারতের প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তানে লাগাতার বেকরত্বের হার বেড়েই চলেছে। ইমরান খান সরকার যুবদের চাকরি দেওয়ায় সম্পূর্ণ ভাবে ব্যর্থ হয়েছে। দেশের বেকারত্বের হার দশ মাসে সর্বোচ্চ সীমায় উঠেছে। পাকিস্তানে চতুর্থ শ্রেণির ক্লার্ক (চাপরাসি) পদের জন্য একটি সরকারি চাকরির বিজ্ঞাপন দেওয়া হয়েছিল। সেখানে অকল্পনীয় ভাবে ১৫ লক্ষ বেকার যুবক-যুবতী আবেদন করে। আরও অবাক করা বিষয় হল, প্রায় ৩০ শতাংশের মতো আবেদনকারী উচ্চ শিক্ষিত ছিল।

পাকিস্তান ইনস্টিটিউট অফ ডেভলপমেন্ট ইকোনমিক্স-র (PIDE) পরিসংখ্যান অনুযায়ী, পাকিস্তানের বেকারত্বের হার ১৬ শতাংশ হয়ে গিয়েছে। মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী, PIDE বেকারত্বের বর্ধিত হার নিয়ে চরম আশঙ্কা জাহির করে বলেছে, বর্তমানে কমপক্ষে ২৪ শতাংশের উচ্চ শিক্ষিত পাকিস্তানি বেকার রয়েছে।

PIDE-র আধিকারিকদের অনুযায়ী, সম্প্রতি হাইকোর্টে ক্লার্কের চাকরির জন্য একটি বিজ্ঞাপন দেওয়া হয়েছিল। সেখানে ১৫ লক্ষ পাকিস্তানি আবেদন করে। আধিকারিকরা জানান, চাকরির জন্য আবেদনকারীদের মধ্যে এমফিল ডিগ্রিধারীও রয়েছে। আধিকারিকরা জানান, সরকারের তরফ থেকে দেশে বেকারত্বের সমস্যা দূর করতে কোনও উদ্যোগই নেওয়া হচ্ছে না।

রিপোর্ট অনুযায়ী, ২০১৭-১৮ সালে পাকিস্তানে বেকারত্বের হার ৫.৮ শতাংশ ছিল। যা ২০১৮-১৯ সালে বেড়ে ৬.৯ শতাংশ হয়ে যায়। আর এরই মধ্যে PIDE-র পরিসংখ্যান সবাইকে চমকে দিয়েছে। PIDE অনুযায়ী, বর্তমানে পাকিস্তানে ২৪ শতাংশ উচ্চ শিক্ষিত যুবক-যুবতী চাকরির আশায় হাপিত্যেশ করছে।

[ad_2]