Press "Enter" to skip to content

পাকিস্তানে জন্মাষ্টমী পালন করছিল হিন্দুরা! ক্ষেপে উঠে আক্রমণ চালাল কট্টরপন্থীরা


দেশ বিভাজিত হয়ে পাকিস্তান তৈরি হওয়ার পর থেকে , শিখদের উপর যে অত্যাচার শুরু হয়েছে তা থামার নাম নেয়নি। তাজা খবর সিন্ধের খিপ্র থেকে সামনে আসছে। যেখানে জন্মাষ্টমী উপলক্ষে ভগবান কৃষ্ণের পূজা করা হিন্দুদের উপর হামলা করা হয়েছে। একই সাথে ভগবান কৃষ্ণের মূর্তিকে খণ্ডিত করা হয়েছে। যে এলকায় ঘটনাটি ঘটেছে সে এলাকা জোরপূর্বক ধৰ্ম পরিবর্তন করানোর জন্য কুখ্যাত।

প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, সোমবার দিন পাকিস্তানে হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজন জন্মাষ্টমী উপলক্ষে পুজো অর্চনা করছিলেন। আর এটা দেখেই পাকিস্তানের কট্টরপন্থীরা ক্ষেপে উঠে। তারা মূর্তি পূজা বন্ধ করার জন্য ভীড় জমা করে এবং হিন্দুদের সাথে মারপিট করতে উদ্যত হয়। এরপর উন্মাদীদের ভীড় ভগবান কৃষ্ণের মূর্তি ক্ষতিগ্রস্ত করে। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ঘটনার হয়েছে।

পাকিস্তানের এক্টিভিস্ট ও উকিল রাহাত অস্টিন টুইট করে বলেছেন, “পাকিস্তানের খিপ্র প্রান্তে হিন্দুদের উপর হামলা করা হয়েছে। হিন্দুদের দেবতা ভগবান কৃষ্ণের মূর্তি ভাঙচুর করা হয়েছে। ভগবান কৃষ্ণের জন্মাষ্টমী পালন করা হচ্ছিল এতেই ক্ষেপে গিয়ে কট্টরপন্থীর এমন কাজ করেছে।”

https://platform.twitter.com/widgets.js

উনি আরো বলেন, “পাকিস্তানে ইসলাম বিরোধী কোনো কথা বলেলে তার শাস্তি হয়। তবে হিন্দুদের দেব দেবীর মূর্তি ভাঙলেও কোনো বিচার হয় না।” রাহাত অস্টিন বলেন, আমি হিন্দু ধর্ম সম্পর্কে বেশকিছু জানি না। তবে আমাকে বলা হয়েছে যে মন্দিরে হামলা হয়েছে, তাই আমি সেটাকে অস্থায়ী পূজা স্থল লিখে ভিডিও পোস্ট করেছি। প্রসঙ্গত, সোশ্যাল মিডিয়ায় পাকিস্তানে জন্মাষ্টমীর এমন হয়েছে। অনেকেই এই ঘটনায় ইমরান খানকে ট্যাগ করে তার চেয়ে বসেছেন।