Press "Enter" to skip to content

পাকিস্তানে বাড়ছে সংখ্যালঘুদের উপর অত্যাচার, এবার শিখ ডাক্তারকে খুন করল কট্টরপন্থীরা

[ad_1]

নয়া দিল্লিঃ পাকিস্তানের পেশাওয়ারে শিখ সম্প্রদায়ের এক ডাক্তারকে অজ্ঞাত পরিচয় দুষ্কৃতীরা গুলি করে হত্যা করল। সংখ্যালঘু সম্প্রদায়কে নিশানা করে পাকিস্তানে ঘটে যাওয়া এটাই সবথেকে তাজা মামলা। পুলিশ জানায়, হামলাকারীরা ক্লিনিকে ঢুকে শিখ ডাক্তারকে চার-চারটি গুলি করে। মৃত ডাক্তারের নাম সতমান সিং।

সতনাম সিংকে আহত অবস্থায় লেডি রিডিং হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। সেখানে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। এক্সপ্রেস ট্রিবিউনের রিপোর্ট অনুযায়ী, ক্যাপিটল সিটির পুলিশ অফিসার জানিয়েছেন যে, এই মামলার তদন্ত চলছে।

লক্ষণীয় বিষয় হল, পাকিস্তানে সংখ্যালঘু হিন্দু আর শিখ সম্প্রদায়ের মানুষকে লাগাতার নিশানা করা হচ্ছে। হিন্দু, শিখ মেয়েদের অপহরণ করে তাঁদের জোর করে ধর্মপরিবর্তন করিয়ে বিয়ে করার অজস্র মামলা উঠে এসেছে ইমরান খানের পাকিস্তান থেকে।

কিছুদিন আগে পাকিস্তানের একটি গণেশ মন্দিরে কট্টরপন্থীরা একযোগে আক্রমণ করে মন্দিরে থাকা দেবতার মূর্তি সহ সমস্ত আসবাবপত্র ভেঙে ফেলে। এছাড়াও কিছুদিন আগেই, পাকিস্তানের এক মসজিদের কোল থেকে জল নেওয়ার অপরাধে এক হিন্দু পরিবারের উপর পাশবিক অত্যাচার করা হয়। উল্লেখ্য, দেশ ভাগের পর থেকেই পাকিস্তানে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষের সংখ্যা কমে চলেছে।

[ad_2]