Press "Enter" to skip to content

পাগলামির শেষ নেই! জয়ের আনন্দে বুঁদ হয়ে গুলি চলল পাকিস্তানে, আহত ২০-র বেশি


নয়া দিল্লিঃ ভারতের (India) বিরুদ্ধে ে প্রথম জয়ের পর পাকিস্তানিরা (Pakistan) খুশিতে পাগল হয়ে উঠেছে। টি২০ বিশ্বকাপের সুপার ১২ রাউন্ডে পাকিস্তানি টিম (Pakistan National Team) রবিবার টিম ইন্ডিয়াকে ১০ উইকেটে হারিয়েছে। আর এরপর থেকেই গোটা পাকিস্তানে উৎসবের মরশুম শুরু হয়ে গিয়েছে। যদিও, এই উৎসব পালনের ফলে অনেকের প্রাণ নিয়ে সংশয় ও দেখা গিয়েছে। আনন্দে আত্মহারা হয়ে পাকিস্তানিরা অনেক জায়গায় ফায়ারিং করেছে বলে জানা যাচ্ছে, যারও কারণে কয়েকজন আহতও হয়েছেন।

পাকিস্তানের মিডিয়া অনুযায়ী, টি২০ বিশ্বকাপে ভারতকে হারানোর পর রবিবার রাতে পাকিস্তানের অনেক জায়গায় ফায়ারিং শুরু হয়। পাকিস্তানি পুলিশের মতে, গুলি লাগার কারণে একজন সাব ইনস্পেক্টর সমেত মোট ১২ জন আহত হয়েছেন। করাচির ঔ রঙ্গী টাউনের সেক্টর-৪ আর ৪-কে তে এলোপাথাড়ি গুলি চলার পর দুজন আহত হয়েছেন। গুলশান-ই-ইকবালে হাওয়ায় ফায়ারিংয়ে সাব ইনস্পেক্টর আবদুল গনি গুলি লাগার কারণে আহতে হয়েছেন। এছাড়াও পাকিস্তানের আরও বহু এলাকা থেকে গোলাগুলির খবর কানে আসছে।

অন্যদিকে পাকিস্তানের শেখ রশিদ আহমেদ পাকিস্তানের টিমের জয়ের পর আনন্দে আত্মহারা হয়ে নিজের অ্যাকাউন্টে একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন, সেখানে তিনি বলেছেন যে, মুসলিমদের আবেগ আমাদের ক্রিকেট দল ও আমাদের সঙ্গে রয়েছে।

শেখ রশিদ ১ মিনিট ১১ সেকেন্ডের ওই ভিডিও পোস্ট করে পাকিস্তানের টিমকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। উনি বলেন, ‘পাকিস্তানের জনতাকে এই জয়ের শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। যেভাবে টিম জিতেছে, সেটা দেখে আমি সেলাম জানাই। আজ পাকিস্তান নিজের শক্তি দেখিয়েছে। আমি দুঃখিত যে এটি প্রথম ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ, যেখানে আমি আমার জাতীয় দায়িত্বের কারণে মাঠে খেলতে পারিনি।”

শেখ রশিদ আরও বলেন, ‘আমি দেশের সব ট্র্যফিককে বলে দিয়েছি যে, সমস্ত বাধা দূর করে দেও যাতে দেশ এই আনন্দ উদযাপন করতে পারে। পাকিস্তানি টিম আর দেশের মানুষকে এই জয়ের শুভেচ্ছা। আজ আমাদের ফাইনাল ছিল। হিন্দুস্তান সহ সমস্ত বিশ্বের মুসলিমদের আবেগ পাকিস্তানি টিমের সঙ্গে রয়েছে। সবাইকে ইসলামের জয় মুবারক।”