Press "Enter" to skip to content

পাঞ্জাবের নয়া মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিং, মহিলার সঙ্গে অশ্লীলতা করার অভিযোগ রয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে

নয়া  ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিংয়ের (Amarinder Singh) ইস্তফার পর ের () পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রীর নাম ঘোষণা হয়ে গিয়েছে। বহু আলোচনার পর চরণজিৎ সিং চন্নিকে (Charanjit Singh Channi) পাঞ্জাবের বানানোর ঘোষণা হয়েছে। এর আগে খবর আসছিল যে সুখজিন্দর সিং রান্ধাবাকে মুখ্যমন্ত্রী বানানো হতে পারে। কিন্তু শেষ মুহূর্তে সবাইকে পরাস্ত করে চরণজিৎ সিং মুখ্যমন্ত্রী হতে চলেছেন।

পাঞ্জাবের নতুন মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে নির্বাচিত হওয়ার চরণজিৎ সিংকে নিয়ে এবার নতুন বিতর্ক ছড়িয়েছে। প্রসঙ্গত, ওনার বিরুদ্ধে Me Too-র অভিযোগ উঠেছিল। এই অভিযোগ নিয়ে চরণজিৎ সিং বলেছিলেন যে, তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রীর কথায় তিনি ওই কাজ করেছিলেন। উনি পাল্টা অভিযোগ করে বলেছিলেন, আমি রাজ্যে দলিত ইস্যু তুলে ধরার জন্যই আমাকে নিশানা করা হচ্ছে।

এই ঘটনা ৩ বছর আগে ২০১৮ সালের। সেই সময় চরণজিৎ সিংয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছিল যে, তিনি এক আইএএস আধিকারিককে অশ্লীল ম্যাসেজ পাঠিয়েছিলেন। সেই সময় এই মামলার কারণে ব্যাকফুটে চলে গিয়েছিলেন পাঞ্জাবের ভাবী মুখ্যমন্ত্রী। যদিও, সেই সময় মহিলা আধিকারিক চরণজিৎ সিংয়ের বিরুদ্ধে কোনও অভিযোগ দায়ের করেছিলেন না। আর পাঞ্জাবের তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন বলেছিলেন যে, সমস্যার সমাধান খোঁজা হয়েছে। সেই সময় চন্নি বলেছিলেন, ওই ম্যাসেজ ভুল করে মহিলার আধিকারিকের কাছে চলে গিয়েছিল।

চন্নির বিরুদ্ধে ওই মহিলা আধিকারিক ধর্নায়ও বসেছিলেন। এরপর চন্নি ওই মহিলা আধিকারিকের কাছে ক্ষমা চেয়ে নেন। সেই সময় ক্যাপ্টেন বলেছিলেন, মন্ত্রী চন্নি ক্ষমা চেয়ে নিয়েছে তাই মামলা এখানেই শেষ হল।