Press "Enter" to skip to content

পাঞ্জাবে নির্বাচনে জিতলে দেওয়া হবে ফ্রী বিদ্যুৎ পরিষেবা! ঘোষণা অরবিন্দ কেজরিওয়ালের

আগামী বছর পাঞ্জাব বিধানসভা নির্বাচনের দিকে চোখ রেখে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল রীতিমতো মাঠে নেমে পড়েছেন। বার্তা দিয়েছেন, যদি আম আদমি পার্টি জয়ী হয় তবে পাঞ্জাবের সমস্ত পরিবারের জন্য ২০০ ইউনিট বিনামূল্যে বিদ্যুত সরবরাহ করা হবে।

অরবিন্দ কেজরিওয়াল একটি টুইট বার্তা দিয়ে বলেছেন, “একজন মহিলার পক্ষে এত ব্যয়বহুলভাবে নিজের বাড়ি চালানো খুব কঠিন। দিল্লিতে আমরা প্রতিটি পরিবারকে ২০০ ইউনিট বিনামূল্যে বিদ্যুৎ সরবরাহ করি, মহিলারা খুব খুশি। পাঞ্জাবের মহিলারা মুদ্রাস্ফীতিতে খুবই অসন্তুষ্ট। আমার ক্ষমতায় এলে সরকার পাঞ্জাবে বিনামূল্যে বিদ্যুৎ সরবরাহ করবে। ”

পাঞ্জাব বিধানসভা ১১৭টি আসন নিয়ে গঠিত। বর্তমানে ক্ষমতাসীন ৭৭ টি আসন জিতেছে, তবে ২০১২ সালের নির্বাচনে অস্তিত্ববিহীন থাকলেও আপ পার্টি ২০১৭ সালের নির্বাচনে ২০ টি আসন জিতেছে। দিল্লির বাইরে নিজেদের প্রভাব বিস্তারের জন্য আম আদমি পার্টি জোর প্রয়াস শুরু করছে। সম্প্রতি আপ প্রধান অরবিন্দ কেজরিওয়াল ঘোষণা করেছেন যে ২০২২ সালের আসন্ন নির্বাচনে তার দল সবকটি আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে।

তবে কেজরিওয়ালের এই ঘোষণা মোটে ভালোভাবে নেয়নি নেটিজেনরা। করোনার সময় দিল্লির জন্য প্রয়োজনের অতিরিক্ত অক্সিজেনের দাবি জানিয়ে বহু রাজ্যের মানুষকে বিপদে ফেলেছিলেন কেজরিওয়াল। যা নিয়ে দেশজুড়ে ভালো রকম ক্ষোভ তৈরি হয়েছে কেজরিওয়ালের উপর। সুপ্রিমকোর্টের দ্বারা গঠিত অডিট কমিটি জানিয়েছে যে কেজরিওয়াল সরকার এপ্রিল-মে মাসে প্রয়োজনের ৪ গুন অক্সিজেন হাতিয়ে প্রায় ১২ টি রাজ্যকে বিপদে ফেলেছিল।

নেটিজেনদের অনেকে আবার কারণ দেখিয়ে বলেছেন, যেহেতু তথাকথিত ে অংশগ্রহণকারীদের বেশিরভাগই পাঞ্জাবের ধনী কৃষক এবং আপ সুপ্রিমোর কেন্দ্রীয় সরকার বিরোধীতা সর্বজনবিদিত। তাই পাঞ্জাবের প্রতি তার এই ঘোষণাকে অনেকেই ভালো চোখে দেখছেন না। অনেকে আবার সমালোচনা করে বলেছেন, নিজের রাজ্যে প্রকোপে মোকাবিলা করার বদলে পড়শি রাজ্য নিয়ে তিনি ব্যস্ত এবং করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে তাঁর ব্যর্থতা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন অনেকে।