Press "Enter" to skip to content

পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সাথে বৈঠকেও হয়নি সুরাহা, রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের অবস্থান নিয়ে এখনো জল্পনা


কলকাতাঃ আজ রাজ্যের বনমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় (Rajib Bannerjee) ও তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সাথে হাইভোল্টেজ বৈঠক হয়। বৈঠক সেরে বেরিয়ে এসেও জল্পনা জিইয়ে রাখেন রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। দলের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাস করা ও দাবি না মানলে কলকাতা অবরুদ্ধ করে দেওয়ার হুঁশিয়ারি দেওয়া মন্ত্রী এখন মুখে কুলুপ এঁটেছেন। বৈঠক সেরে বেরিয়ে এসে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘বলার মতো কিছুই হয়নি। দলীয় নেতৃত্ব ডেকেছিল, তাই এসেছিলাম।”

অমিত শাহের বাংলা সফরের প্রথম দিন থেকে রাজ্য জুড়ে চলছে দলবদলের পালা। শুভেন্দু বিজেপিতে যাওয়ার আগেই দল আর নিজের সরকারের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছিলেন মন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। ওনার ক্ষোভ মেটাতে দলের মধ্যে চলেছে গভীর আলোচনা। আর সেই ক্রমেই আজ সোমবার তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতে বসেছিল মিটিং। তবে এই বৈঠকে বরফ যে গলেনি সেটার আশঙ্কা করছে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

বৈঠক সেরে বেরিয়ে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় সাংবাদিকদের জানান, ‘দলের নির্দেশ পালনে একজন কর্মী হিসেবে এসেছি। এর আগেও বহুবার এসেছি এখানে। বলার মতো তেমন কিছুই হয়নি।” দলের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করা নিয়ে সাংবাদিকরা ওনাকে প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, নিন্দুকের কাজই হল নিন্দা করা। আমি এখনো নিজের থেকে কিছুই বলিনি।

বৈঠক নিয়ে ওনাকে জিজ্ঞাসা করলে তিনি বলেন, দলীয় বৈঠকের কথা বাইরে বলতে পারব না। শুভেন্দু প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘ও আলাদা মানুষ, আমি আলাদা মানুষ। সবারই একটা নিজস্ব মতামত থাকে।” মন্ত্রীর কথা শুনে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের একাংশের ধারণা যে, তিনি এখন খুব মেপে মেপে পা ফেলছেন। উনি কি করবেন সেটা নিয়ে এখনো ধোঁয়াশা রয়েছে।