Press "Enter" to skip to content

পাশে ঘেঁষছে না পরিবার, করোনায় মৃতদের সৎকার থেকে অস্থি বিসর্জন সবই করছে স্বয়ংসেবকরা

ভোপালঃকরোনা মহামারীর মধ্যে মৃত্যুমিছিল বেড়ে চলেছে। করোনা রোগীরা শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করার পর পরিজনেরাও আতঙ্কে সঙ্গ দিচ্ছে না। এছাড়াও কোভিড প্রোটোকল অনুযায়ী, বেশি মানুষ শেষকৃত্যে অংশ নিতে পারবেন না। যেহেতু পরিজনেরা এগিয়ে আসছেন না, সেহেতু কাউকে না কাউকে তো শেষকৃত্য আর অস্থি বিসর্জন করতে হবে? এবার এই কঠিন সময়ে এগিয়ে আসল আরএসএস। যেই মৃতদের পাশে পরিজনরা থাকতে পারছেন না, তাঁদের দাহ করা থেকে শুরু করে অস্থি বিসর্জন সবই স্বয়ংসেবকরা করছেন।

https://platform.twitter.com/widgets.js

মুখাগ্নি করারও কেউ নেই। দু-একজন যারা আসছেন, তাঁরাও মৃত্যু ভয়ে দূরে দাঁড়িয়ে থাকছেন। আর সেই সময়ে মানবতার খাতিরে শেষ পথ যাত্রীদের সম্মানের সহিত দাহ এবং বাকি সমস্ত কাজ কাড়ছেন স্বয়ংসেবকরা। কাঠ এনে চিতা সাজানো, মুখাগ্নি করা … সবই স্বয়ংসেবকরাই করছেন।

প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, মধ্যপ্রদেশের রাজধানী ভোপালে সঙ্ঘের স্বয়ংসেবকরা ২০০-র বেশি অস্থি নিয়ে গিয়ে সম্পূর্ণ রীতি পালন করে নর্মদায় বিসর্জন করছেন। এছাড়াও ে সঙ্ঘের স্বয়ংসেবকরা একজন পুরোহিতের দাহসংস্কার করে। ওই পুরোহিত জ্বরে আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছিলেন। তাঁর শেষকৃত্য করার জন্য পরিবারের কেউই এগিয়ে আসেনি। এরপর পুলিশ আর স্বয়ংসেবকরা হাতে হাত ধরে ওই পুরোহিতের শেষকৃত্য করে।

https://platform.twitter.com/widgets.js