Press "Enter" to skip to content

ফুরফুরা শরীফের জন্য রাজ্যের ভাণ্ডার খুলে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী, দিলেন কয়েক কোটি টাকার দান


কলকাতাঃ রাজ্যে আট দফায় নির্বাচনের ঘোষণা হয়ে গিয়েছে। রাজ্যে আদর্শ আচরণবিধিও লাগু হয়ে গিয়েছে। আর আদর্শ আচরণবিধি লাগু হওয়ার কয়েক ঘণ্টা আগেই রাজ্যের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন তৃণমূল কংগ্রেস সরকার ফুরফুরা শরীফের উন্নয়নের জন্য ২.৬০ কোটি টাকা দেওয়ার ঘোষণা করেছে।

আধিকারিকরা জানান, এই টাকা ২০ টি উঁচু স্তম্ভ আর ৪০০ টি LED স্ট্রিট লাইট এবং তীর্থক্ষেত্রের সৌন্দর্যায়নের পরিযোজনার জন্য ব্যবহার করা হবে। ২০২০-২১ এর আর্থিক বছরে কমপক্ষে ৬০ টি যোজনা আর ফুরফুরা শরীফের উন্নয়নের জন্য ২০ কোটি টাকা বন্টন করা হয়েছে।

রাজস্থানের আজমের শরীফের পর ফুরফুরা শরীফই দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম সুফি মাজার। এই দরগাহর সঙ্গে যুক্ত ফুরফুরা শরীফের পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকী সম্প্রতি নতুন দলের ঘোষণা করেছেন। আর তিনি দল ঘোষণার আগে থেকেই তৃণমূলের বিরুদ্ধে সরব হয়েছে। রাজ্যের শাসক দলের মুসলিম ভোট ব্যাঙ্কে থাবা বসানোর জন্যই তিনি এই পরিকল্পনা নিয়েছেন। এমনকি তিনি রাজ্য থেকে তৃণমূল সরকারকে উৎখাত করতে বাম-কংগ্রেসের সঙ্গেও হাত মিলিয়েছে।

রাজ্যের মুসলিম ভোট যাতে নিজেদের হাত থেকে চলে না যায় সেটা নিয়ে চিন্তিত তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একদিকে দলের অনেক নেতারাই বিক্ষোভের সুর ধরেছে, আরেকদিকে ইন্ডিয়ান সেকুলার দলও তৃণমূলের সংখ্যালঘু ভোটে থাবা বসাতে চলেছে। আর সেই নিয়ে উদ্বিগ্ন মুখ্যমন্ত্রী। আর সেই কারণে তিনি ভোটের আগে ফুরফুরা শরীফের প্রাক্তন পীরজাদা ত্বহা সিদ্দিকীর সঙ্গে হাত মিলিয়ে ফুরফুরা শরীফকে বড় দান দেওয়ার ঘোষণা করেছেন।

https://platform.twitter.com/widgets.js

প্রাক্তন তৃণমূল নেতা দীপ্তাংশু চৌধুরী এই নিয়ে মমতা সরকারকে কটাক্ষ করেছেন। তিনি একটি ট্যুইট করে লিখেছেন, ‘কিছু অভ্যাস কোনদিনও যায় না। ফুরফুরা শরীফকে পশ্চিমবঙ্গে আদর্শ আচরণবিধি লাগু হওয়ার মাত্র কয়েক ঘন্টা আগে ২.৬ কোটি টাকা অনুদান দেওয়া হয়েছে। একটি সম্প্রদায়কে সন্তুষ্ট করার জন্য এত কিছুর করে তৃণমূল। তবুও এখনও সাধারণ মুসলমানদের মন জয় করতে পারেনি।”