Press "Enter" to skip to content

ফোন পর্যন্ত করেন না! বাইডেনকে নিয়ে দুঃখ প্রকাশ ইমরান খানের

[ad_1]

নয়া দিল্লিঃ আমেরিকার রাষ্ট্রপতি জো বাইডেন সম্প্রতি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছিলেন। এছাড়াও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আমেরিকার উপরাষ্ট্রপতি কমলা হ্যারিসের সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেন। ভারতের সঙ্গে আমেরিকার সম্পর্কে আরও উন্নতির মধ্যে বাইডেন প্রশাসনের সঙ্গে ইসলামাবাদের সম্পর্ক খারাপের দিকে যাচ্ছে। এমনকি হোয়াইট হাউসের এক বরিষ্ঠ আধিকারিক বলেছেন যে, জানিনা রাষ্ট্রপতি বাইডেন কবে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে ফোন করবেন।

বলে দিই, ইমরান খান আমেরিকার একটি মিডিয়াকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে অভিযোগ করে বলেন, রাষ্ট্রপতি বাইডেন এখন খুব ব্যস্ত আর ওনার সঙ্গে আমার কথাও হয়নি। ইমরনা বলেন, কিন্তু আমি আফগানিস্তান ইস্যু নিয়ে ওনার সঙ্গে কথা বলার জন্য মুখিয়ে রয়েছি। এই প্রসঙ্গে হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি জেন সাকী বলেন, আমি এই বিষয়ে কোনও ভবিষৎবাণী করতে পারব না। তবে রাষ্ট্রপতি ফোন করলে আপনারা জানতে পারবেন।

মিডিয়া ব্রিফিংয়ের সময় সাকী এই কথার উল্লেখ করে বলেন, যখন রাষ্ট্রপতি বাইডেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে বৈঠক করছিলেন, তখন ইমরান খান রাষ্ট্রসংঘের মঞ্চে আফগানিস্তান নিয়ে আমেরিকার সমালোচনা করছিলেন। সাকী বলেন, আমেরিকা পাকিস্তানের বিদেশ মন্ত্রালয় আর প্রতিরক্ষা বিভাগের মতো গুরুত্বপূর্ণ সংস্থার টপ লিডার্সদের সঙ্গে যোগাযোগ রয়েছে। এটা সত্য যে বাইডেন এখনও পাকিস্তানের নেতাদের সঙ্গে কথা বলেনি, কিন্তু ওনার কাছে একটি বিশেষজ্ঞর দল রয়েছে যাদের এই কাজের দায়িত্বে রাখা হয়েছে।

বলে দিই, জো বাইডেন এই বছরের জানুয়ারি মাসে আমেরিকার রাষ্ট্রপতি হয়েছিলেন। এমাসের ১৫ তারিখে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাইডেন খুব ব্যস্ত মানুষ। উনি মার্কিন মিডিয়া কর্মীদের বলেন, আপনারাই ওনাকে জিজ্ঞাসা করুন যে উনি পাকিস্তানের সঙ্গে কথা বলার জন্য এত দেরি কেন করছেন? যদিও, এমনও না যে আমি ওনার ফোনের অপেক্ষায় রয়েছি। উনি ফোন করবেন কী না, সেটা ওনার ইচ্ছে। ইমরান খান বলেন, তালিবান আফগানিস্তানে নিয়ন্ত্রণ করার পর থেকেই ওনার সঙ্গে আমার কথা হয়নি।

[ad_2]