Press "Enter" to skip to content

বদলা নিতে, বাড়িতে ঢুকে ‘বাংলার অসুস্থ মা”কে হাত-পা বেঁধে গণধর্ষণ করল তৃণমূলের নেতারা


হাওড়াঃ সোমবার সকালে হাওড়ার বাগনানে তুমুল চাঞ্চল্যকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। সেখানে এক কর্মীর স্ত্রীকে গণধর্ষণ করার অভি উঠেছে শাসক দল ের নেতাদের বিরুদ্ধে। এই গণধর্ষণ কাণ্ডে অভিযুক্ত দুই তৃণমূল নেতাকে করেছে পুলিশ। ধৃত দুজনের মধ্যে একজন এলাকার সভাপতি। অন্যজন তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতি।

প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, আমতা বিধানসভা কেন্দ্রের ওই মহিলা কিছুদিন ধরে অসুস্থ। স্ট্রোক হওয়ার কারণে তিনি কথাও বলতে পারেন না। নির্যাতিতার স্ী জরুরি কাজে কলকাতায় গিয়েছিলেন। রাতে ওই গৃহবধূ একাই বাড়িতে ছিলেন। আর সেই সুযোগেই রাতের অন্ধকারে তৃণমূলের যুব সভাপতি দেবাশিস রানা, অঞ্চল সভাপতি কুতুবউদ্দিন মল্লিক সহ পাঁচজন তৃণমূলের নেতা-কর্মী ওই বাড়িতে হানা দেয়।

শনিবার নির্যাতিতার বাড়িতে গিয়ে তাঁরা বিজেপি কর্মীর নাম ধরে ডাকাডাকি শুরু করেন। গৃহবধূ পরিচিত মানুষ ভেবে দরজা খুলতেই তাঁর উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে তৃণমূলের নেতারা। এরপর তাঁকে গণধর্ষণ করে তাঁরা। রবিবার ভোর বেলায় বিজেপি কর্মীর ছেলে ঘুম থেকে উঠে দেখে যে, তাঁর মা কে হাত-পা বেঁধে মাটিতে ফেলে রাখা হয়েছে। এরপরই সে তাড়াতাড়ি বাবাকে ফোন করে সমস্ত ঘটনা জানায় আর প্রতিবেশীদের সাহায্যে মাকে হাসপাতালে নিয়ে যায়। উলুবেড়িয়া মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করানো হয় নির্যাতিতাকে।

এই খবর প্রকাশ্যে আসতেই চারিদিকে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। পুলিশ তৃণমূলের যুব নেতা আর অঞ্চল সভাপতিকে গ্রেফতার করেছে। সোমবার তাঁদের আদালতে তলা হবে। নির্যাতিতার স্বামী জানান, আমি বিজেপি করি আর আমাদের বুথে বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি অনেক ভোট পেয়েছে। এই কারণেই ওঁরা আমাকে দমাতে আমার স্ত্রীর সঙ্গে এই কাজ করেছে।