Press "Enter" to skip to content

বাংলাদেশিদের হাতে পাকিস্তানি পতাকা দেখে সইতে না পেরে বড় বয়ান দিলেন মাশরাফি মোর্তাজা


কলকাতাঃ টি-২০ (Twenty20) বিশ্বকাপের ৫ টি ম্যাচের পাঁচটিতেই হেরে বিদায় জানিয়েছিল (Bangladesh) টিম। আর তাঁর জেরেই তাঁদের পড়তে হয়েছিল তুমুল সমালোচনার মুখে। বিশ্বকাপে ভরাডুবির পর জাতীয় দলে নতুনদের সুযোগ দিয়ে শাপমোচন করার প্রচেষ্টায় রয়েছে বাংলাদেশের ক্রিকেট বোর্ড। কিন্তু সফলতা এখনো হাতে আসেনি। পাকিস্তানের (Pakistan) বিরুদ্ধে নিজের দেশেই প্রথম ম্যাচে হেরে গিয়েছে টাইগাররা।

আজমদের বিরুদ্ধে মাত্র ১২৮ রানের লক্ষ্য রেখেছিল বাংলা টাইগাররা। আর লক্ষ্য পূরণ করতে নেমে ৫ বল বাকি থাকতেই সহজ জয় হাসিল করে নেয় পাকিস্তান। প্রথম ম্যাচে হেরে তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজে ১-০ তে পিছিয়ে গেল বাংলাদেশ। আগামী দুটি ম্যাচে টাইগাররা যে কামব্যাকের লক্ষ্যেই নামবে, সেটা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

, পাকিস্তানের মতো বাংলাদেশেও ক্রিকেট নিয়ে উন্মাদনা কিছু কম নয়। ঘরের মাঠে খেলা হলে সবসময় বাংলাদেশের স্টেডিয়াম ভর্তি থাকে। মিরপুরে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচেও তেমনি দৃশ্য দেখা গিয়েছে। তবে খেলা বাংলাদেশে হল না পাকিস্তানে, সেটা বোঝা দায় ছিল। কারণ টাইগাররা আউট হলেও স্টেডিয়ামে বসে থাকা বাঙালী দর্শকরা উল্লাসে ফেটে পড়ছে। অন্যদিকে পাকিস্তান যখন ছয় বা চার মারছে, তখনও বাংলাদেশিদের মনে উন্মাদনা কম নয়।

মিরপুরের ম্যাচে স্টেডিয়ামে বাংলাদেশের পতাকার পাশাপাশি বহু পাকিস্তানের পতাকাও দেখা যায়। আর আশ্চর্য বিষয় হল, সেই পতাকা বাংলাদেশি ক্রিকেট সমর্থকদের হাতেই বেশি করে দেখা যায়। আর এই নিয়েই দুঃখ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশের প্রাক্তন অধিনায়ক মাশরাফি মোর্তাজা (Mashrafe Mortaza)। বাংলাদেশি অনুযায়ী তিনি একটি বয়ান জারি করে বলেছেন, ‘খেলার সঙ্গে কোনো কিছু মেলানো যায় না এটা ঠিক, কিন্তু খেলাটা যখন আমাদের দেশে আর খেলছে আমাদের দেশ, সেখানে অন্য যে দেশই খেলুক না কেন, তাদের পতাকা তাদের দেশের মানুষ ছাড়া আমাদের দেশের মানুষ উড়াবে, এটা দেখে সত্যি কষ্ট লাগে। যে যাই বলুক, ভাই দেশটা কিন্তু আপনার। আজ হয়নি তো কাল হবে, না হলে পরশু হবে। আপনারা পাশে না থাকলে আর হবেই না। হারি বা জিতি স্টেডিয়ামে আমাদের দেশের পতাকা উড়ুক চিৎকার হোক বাংলাদেশ।’

উল্লেখ্য, বাংলাদেশে পাকিস্তানের পতাকা নিয়ে অসন্তোষ এটাই প্রথম নয়। দল বাংলাদেশে অনুশীলন করার সময় তাঁদের পতাকা পুঁতে রাখাতেও অনেক বিতর্ক ছড়িয়েছে। আর এর বিরুদ্ধে বাংলাদেশের এক শ্রেণির মানুষ বিক্ষোভ দেখিয়ে পাকিস্তানের পতাকা পুড়িয়েছেন। তবে, যাই হোক বহু বাংলাদেশিদের মনে এখনো যে পাকিস্তান ঘর করে, সেটা পরিস্কার বোঝাই যাচ্ছে।