Press "Enter" to skip to content

বাংলার হিংসা নিয়ে উত্তাল UK, USA, অস্ট্রেলিয়া, কানাডা! পথে নেমে প্রতিবাদ জানালো প্রবাসী ভারতীয়রা



কলকাতাঃ রাজ্যের ের ফলাফল ঘোষণা হওয়ার পর চারিদিক থেকে বিক্ষিপ্ত অশান্তির খবর সামনে এসেছে। বিজেপির কর্মী কর্মী-সমর্থকরা প্রাণ হারিয়েছেন, আর অনেকে আহতও হয়েছে। এবার বাংলায় ছড়িয়ে পড়া এই অশান্তির বিরুদ্ধে বিভিন্ন দেশে প্রবাসী এবং বাঙালীরা বিরোধ প্রদর্শন করছে। বিজেপির নেতা নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে প্রবাসী ভারতীয় এবং বাঙালীদের দ্বারা করা এই বিক্ষোভ প্রদর্শনের ছবি/ভিডিও শেয়ার করেছেন।

https://platform.twitter.com/widgets.js

ব্রিটেনে, কানাডা, অস্ট্রেলিয়া, জর্জিয়া, আমেরিকা, নাইজেরিয়া সহ বিভিন্ন দেশে পশ্চিমবঙ্গে ভোট পরবর্তী হিংসার বিরুদ্ধে সরব হয়েছে প্রবাসীরা। বিদেশে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে স্লোগান তুলছে প্রবাসীরা। তাঁরা বাংলায় চলা হিংসার জন্য সরসরি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং তৃণমূল সরকারকে দায়ী করেছে।

https://platform.twitter.com/widgets.js

এক প্রদর্শনকারী বলেন, ‘আমাদের এই প্রদর্শন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের শাসন কালে বাংলায় ঘটে যাওয়া হিংসার বিরুদ্ধে হচ্ছে। বাংলার সরকার রাজ্যে হিংসা রুখতে ব্যর্থ হয়েছে।” তাঁরা এও জানান যে, বাংলার হিংসা নিয়ে অনেক মিডিয়াই মুখ বুজে রয়েছে।

https://platform.twitter.com/widgets.js

উল্লেখ্য, পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা হওয়ার পর চারিদিক থেকে হিংসার অভিযোগ উঠে আসছে। , সিপিএম সমেত সমস্ত বিরোধী দলের কর্মীদের উপর অত্যাচার করা হচ্ছে বলে অভিযোগ তুলেছে বিরোধীরা। এমনকি এখনও অনেক বিরোধী দলের কর্মী ঘরছাড়া বলে অভিযোগ করা হয়েছে। এছাড়াও কোচবিহারের অসম সীমান্ত লাগোয়া এলাকা থেকে অনেক বিজেপি কর্মী প্রাণ ভয়ে অসমেও চলে গিয়েছে।

দিন কয়েক আগে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বি মুরলীধরণ বাংলায় চলা হিংসার পর্যবেক্ষণ করতে এসেছিলেন। পশ্চিম মেদিনীপুরের পাঁচকুড়া এলাকায় তৃণমূলের কর্মীদের বিরুদ্ধে ওনার গাড়ি ভাঙচুর করার অভিযোগ ওঠে। যদিও, তৃণমূলের তরফ থেকে সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে। তাঁরা পাল্টা অভিযোগ করে বলেছিল যে, বিজেপি মানুষের রায় মেনে নিতে পারছে না বলেই এরকম নাটক করছে।