Press "Enter" to skip to content

বাংলা ভাষা এত মিষ্টি তাই বাংলায় কথা না বলে থাকতে পারলাম না, পুজোর উদ্বোধনে বললেন প্রধানমন্ত্রী মোদী


কলকাতাঃ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (narendra modi) আজ ের (west bengal) মানুষদের সাথে দুর্গাপুজোয় ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে যুক্ত হয়েছিলেন। আজ বাঙালীদের শ্রেষ্ঠ উৎসবে তিনি বাংলা ভাষাকেই বিশেষ করে প্রাধান্য দেন। আর এরজন্য তিনি আজ বাংলায় অনেক কথা বলেন। আবেদ্গ ধরে রাখতে না পেরে তিনি বলেন, ‘বাংলা ভাষা এত মিষ্টি তাই বাংলায় কথা না বলে থাকতে পারলাম না।”

বঙ্গ বিজেপির মহিলা মোর্চা দ্বারা পরিচালিত দুর্গাপুজোর উদ্বোধন করেন তিনি। মহিলারা শঙ্খ বাজিয়ে ওনাকে স্বাগত জানান। এরপর বিজেপির সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়ো একটি রবীন্দ্র সংগীত গান। বাঙালীর শ্রেষ্ঠ উৎসব দুর্গাপুজোর অংশ নিতে পেরে নিজেকে সৌভাগ্যবান বলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বক্তব্যের শুরুতেই তিনি বাংলা ভাষায় কথা বলে আপামর বাঙালীর মন জয় করে নেন। উনি সমগ্র দেশকে দুর্গাপুজো, লক্ষ্মীপুজো এবং দীপাবলির আগাম শুভেচ্ছা জানান।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন, আজ এই শুভ অবসরে আমি সেই মহান মানুষদের সামনে মাথা নত করছি, যারা ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনকে জীবন্ত করে তুলেছিলেন। নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসু, শ্যামা প্রসাদ মুখার্জী, ক্ষুদিরাম বসু, প্রফুল্ল চাকী, মাস্টারদা সূর্যসেন, বাঘা জতিন-কে আমি নমস্কার জানাই।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন, রবীন্দ্রনাথ ঠাকু, বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়, শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় কে প্রণাম জানাই।  সমাজকে অনেক নতুন রাস্তা দেখানো ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর, রাজা রাম মোহন রায়, গুরুচন্দ্র ঠাকুর, হরিচন্দ্র ঠাকুর, পঞ্চানন বর্মাকেও প্রণাম জানাই।

https://platform.twitter.com/widgets.js

আজকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বক্তৃতার ৯৯ শতাংশই ছিল বাংলা আর বাঙালীদের নিয়ে। তিনি যে আজ সমস্ত হোমওয়ার্ক করে এসেছিলেন, সেটা ওনার ভাষণ শুনেই বোঝা যাচ্ছিল। স্বাধীনতা আন্দোলনে বিদেশী পন্য বরজন করার জন্য ‘মায়ের দেওয়া মোটা কাপড়” গানও ওনার বক্তৃতায় শোনা যায়। তিনি বলেন, আমার সন্তান যেন থাকে দুধে ভাতে। ভাঙা ভাঙা বাংলায় বললেও, ওনার বলা কথা যে আপামর বাঙালীর মন জয় করে নিয়েছে, সেটা বলাই বাহুল্য।