Press "Enter" to skip to content

বানাতে হবে দোতলা বাড়ি, মমতা ব্যানার্জীর অনুপ্রেরণায় চপ ভাজলেন বিধায়ক

[ad_1]

বাঁকুড়াঃ একুশের নির্বাচনের হারের পর থেকেই বঙ্গ বিজেপিতে ব্যাপক ভাঙন দেখা গিয়েছে। একের পর এক নেতা, বিধায়ক এমনকি সাংসদও দল ছেড়ে তৃণমূলে গিয়ে যোগ দিয়েছেন। এছাড়াও বিগত কয়কদিন ধরেই রাজ্য বিজেপিতে শুরু হয়েছে হোয়াটসঅ্যাপ জিহাদ। বহু বিধায়ক বিজেপির গ্রুপ ত্যাগ করে জল্পনা বাড়িয়েছেন।

আর এবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অনুপ্রেরণায় চপ ভেজে রীতিমত চারিদিকে হুলস্থূল কাণ্ড বাঁধিয়ে দিলেন বাঁকুড়ার বিজেপি বিধায়ক নীলাদ্রিশেখর দানা। এমনকি তিনি চপ ভেজে এও বলেছেন যে, তিনি মুখ্যমন্ত্রীর অনুপ্রেরণায় এই কাজ করেছেন। তিনি জানান, বেকারদের উৎসাহিত করছি। মুখ্যমন্ত্রী তো নিজেই বলেছেন যে, চপ ভেজেও দোতলা-তিনতলা বাড়ি বানানো যায়।

শনিবার সকালে বাড়ির পাশের একটি চপের দোকানে চপ ভাজতে দেখা যায় বিজেপির বিধায়ককে। নীলাদ্রিবাবু জানান, বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মানে আমারও মুখ্যমন্ত্রী। আমাদের মুখ্যমন্ত্রী বাংলার বেকারদের উৎসাহিত করতে বলেছেন পাড়ায় পাড়ায় চপের দোকান দাও, ঠেলা গাড়ি খোল। আমিও শিক্ষিত বেকার যুবক। মুখ্যমন্ত্রীর পরামর্শ মেনেই চপের দোকান খুলেছি।

অন্যদিকে, বিজেপি বিধায়কের এই কাজকে স্বাগত জানিয়েছেন বাঁকুড়ার তৃণমূল বিধায়ক অরূপ চক্রবর্তী। তৃণমূল বিধায়ক বলেন, নীলাদ্রিবাবুর মনের থেকে এই কথা বেরিয়েছি। তিনি স্বীকার করলেন যে, মুখ্যমন্ত্রী বাংলার উন্নয়নের জন্য যেই প্রকল্পগুলো চালাচ্ছেন, তাতে মানুষের উপকারই হবে। ওনাকে এটা বোঝার জন্য অভিনন্দন জানাচ্ছি।

[ad_2]