Press "Enter" to skip to content

বাম ব্রিগেডে এসেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের শরণে লালুপুত্র তেজস্বী যাদব! হবে জোট নিয়ে আলোচনা


কলকাতাঃ আজ সেই বহুপ্রতীক্ষিত ব্রিগেড। আজকের এই ব্রিগেডকে ঐতিহাসিক করার লক্ষ্যে বিগত কয়েকমাস ধরে অক্লান্ত পরিশ্রম করে চলেছে বাম এবং কংগ্রেসের কর্মীরা। তাঁদের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়েছে আব্বাস সিদ্দিকীর ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্টের কর্মীরা। বিমান বসুর কথায়, এই ব্রিগেডে কম বেশি ১০ লক্ষ মানুষ আসবে। শাসক-বিরোধী সবাই কাঁপবে ব্রিগেডের জনসংখ্যা দেখে।

আরেকদিকে, ব্রিগেডে বাম-কংগ্রেস এবং আব্বাস সিদিক্কী ছাড়াও উপস্থিত থাকছেন বিহারের নেতা তথা লালু পুত্র তেজস্বী যাদব। ব্রিগেডে সবথেকে তরুণ মুখ হবেই এই তেজস্বী। তাহলে কি জোটে তেজস্বী যাদবের নেতৃত্বাধীন RJD ও নাম লেখাচ্ছে? যদিও এই নিয়ে ধোঁয়াশা রয়েছে।

তবে, সবথেকে বড় বিষয় হল বামেদের ব্রিগেডে যোগ দিতে এসে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে দেখা করার সময় চেয়েছেন RJD নেতা তেজস্বী যাদব। সুত্র অনুযায়ী, তেজস্বীর ডাকে সাড়াও দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জানা যাচ্ছে যে, ব্রিগেড শেষ করে তৃণমূল নেত্রীর সঙ্গে দেখা করে বিহারে ফিরবেন লালু পুত্র।

বলে রাখি, ২০২০ এর বিহার বিধানসভা নির্বাচনে তেজস্বী যাদব এবং কংগ্রেসের সঙ্গে জোট করেছিল বামেরা। আর সেই সুত্রেই এবার বাংলাতেও RJD কে সাথে নিয়ে চলতে চায় আলিমুদ্দিন। RJD-র জন্য আসনও ছাড়তে প্রস্তুত তাঁরা। আর সেই কারণেই আজ ব্রিগেডে আসছেন বিহারের প্রাক্তন উপ মুখ্যমন্ত্রী তেজস্বী যাদব।

তবে তিনি এক ঢিলে দুটি শিকার করতে চাইছেন। কলকাতায় এসে শুধু ব্রিগেড করেই বাড়ি ফিরবেন না তিনি। তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করে তবেই বিহার যাবেন। আর তৃণমূল নেত্রী দেখা করার জন্য সাড়াও দিয়েছেন। বলে রাখি, বাংলায় তৃণমূলের সঙ্গে জোট করার জন্য আগ্রহী হয়েছে RJD। ২০০৬ সালে বাংলায় একটি আসনও জিতেছিল লালুর দল। আর এবার বিজেপিকে ঠেকাতে তৃণমূলের হাত ধরতে ইচ্ছুক তাঁরা।