Press "Enter" to skip to content

বিজেপি করার অপরাধে সত্তরোর্ধ্ব বৃদ্ধাকে গণধর্ষণ, পূর্ব মেদিনীপুরে গ্রেফতার এক তৃনমূল নেতা


খেজুরিঃ বাদ গেল না ৭০ বছরের বৃদ্ধাও। পূর্ণ বয়স্ক ওই মহিলাকে গণধর্ষণের অভি উঠেছে তৃনমূল আশ্রিত দুষ্কৃতিদের বিরুদ্ধে। গোটা ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। এই অমানবিক ঘটনাটি ঘটেছে পুরব মেদিনীপুর জেলার খেজুরি বিধানসভার জনকা এলাকায়। নির্যাতিতা বৃদ্ধার পরিবার অভিযোগ করে বলেছে যে, ি করার অপরাধেই বাড়ির বয়স্ক মহিলার সঙ্গে এই পৈশাচিক কাজ করা হয়েছে।

প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, প্রথমে নির্যাতিতার বৌমাকে ধর্ষণ করার চেষ্টা করে দুষ্কৃতিরা। নির্যাতিতা দুষ্কৃতিদের কাজে বাধা দেওয়ায় তাকেই যৌন লালসার শিকার হতে হয়। খেজুরি থানার ঘটনাস্থলে গেলে তাদেরকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখায় উত্তেজিত জনতা। নির্যাতিতার পরিবারের অভিযোগে তৃনমূল করমি শঙ্কর শিটকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

কাঁথি সাংগঠনিক জেলার বিজেপি সভাপতি অনুপ চক্রবর্তী জানান, তৃনমূল তৃতীয়বার ক্ষমতায় আসার পর থেকে মহিলাদের প্রতি অত্যাচার আর বেড়ে গিয়েছে। পুলিশের নাকের ডগায় সবকিছু হচ্ছে, তবুও তারা নীরব রয়েছে। দেশের ের দিনে এই ঘটনা বাংলার মুখে কলঙ্ক।

অন্যদিকে তৃনমূল সমস্ত অভিযোগ খারিজ করে দিয়েছে। তৃনমূলের স্থানীয় নেতা পার্থপ্রতিম দাস জানান, আমাদের বিরুদ্ধে যেসমস্ত অভিযোগ করা হচ্ছে তা মিথ্যে ও ভিত্তিহীন। আমাদের ডলের কারও এর সঙ্গে কোনও যোগাযোগ নেই। দোষীর উপযুক্ত শাস্তি হোক আর আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যে অভিযোগ করাও বন্ধ হোক।