Press "Enter" to skip to content

বিজেপি নেতা মণিশ শুক্ল খুনে গ্রেফতার মোহম্মদ খুররম ও গুলাব শেখ নামের দুই দুষ্কৃতী


ঃ ব্যারাকপুরের দোর্দণ্ডপ্রতাপ বিজেপি () নেতা মণীশ শুক্ল (Manish Shukla) খুনে CID এর হাতে গ্রেফতার মোহম্মদ খুররম ও গুলাব শেখ নামের দুই দুষ্কৃতী। জানা গিয়েছে, ধৃতদের সাথে মণীশ শুক্লর পুরনো শত্রুতা রয়েছে। পুলিশ সুত্রের খবর অনুযায়ী, জিজ্ঞাসাবাদ করার সময় দুজনের বয়ানে অসঙ্গতি পাওয়া গেলে তাঁদের গ্রেফতার করা হয়। দুজনকেই আজ সকালে গ্রেফতার করে সিআইডি। এই খুনের পিছনে মূল কারণ কি, আর কারা কারাই বা রয়েছে সেটি জিজ্ঞাসাবাদ করার পরেই জানা যাবে।

জানিয়ে দিই, রবিবার পার্টি অফিসের সামনে অজ্ঞাত পরিচয় দুষ্কৃতীরা বিজেপির নেতা মণীশ শুক্লকে গুলি করে।মণীশ শুক্ল সিংয়ের হাত ধরে ছেড়ে বিজেপিতে নাম লিখিয়েছিলেন। গুলিবৃদ্ধ হওয়ার পর ওনার মৃত্যু হয়। বিজেপি এই ঘটনায় শাসকদল দিকে আঙুল তুলেছে। বিজেপি এই ঘটনায় সিবিআই তদন্তেরও দাবি করেছে।

টিটাগড় থানা থেকে ঢিলছোড়া দূরত্বে এই মর্মান্তিক কাণ্ড ঘটে। এরপর গোটা এলাকায় উত্তেজনা ছড়ায়। ঘটনার প্রতিবাদে বিটি রোড অবরুদ্ধ করে বিজেপির কর্মীরা। পরিস্থিতি সামাল দিতে এলাকায় নামানো হয়েছ কমব্যাট ফোর্স। গতকাল এই ঘটনার প্রতিবাদে ১২ ঘণ্টার ব্যারাকপুর বন্ধের ডাক দিয়েছিল বিজেপি। রাস্তায় রাস্তায় চলেছিল বিক্ষোভ প্রদর্শন।

রবিবার হাওড়ায় একটি দলীয় সভায় যোগ দিয়েছিলেন মণীশ শুক্ল। সেখান থেকে তিনি সন্ধ্যায় টিটাগড় থানার পাশেই বিজেপির একটি কার্যালয়ে ঢুকতেই যাচ্ছিলেন, তখন পিছন থেকে একের পর এক গুলি চালানো হয় ওনার উপর। বেশ কয়েক রাউন্ড গুলি চলার পর মাটিতে লুটিয়ে পড়েন মণীশ শুক্ল। এরপর তড়িঘড়ি ওনাকে টিটাগড়ের একটি বেি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে, ওনাকে বাইপাসের ধারে একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। চিকিৎসা চলাকালীন ওনার মৃত্যু হয়।