Press "Enter" to skip to content

বিদেশে হিন্দুধর্ম ও ভারতীয় সংস্কৃতি ছাড়ানোর জন্য লাগাতার কাজ করে চলেছে আরএসএস।

আমরা স্বয়ংসেবক সঙ্ঘের সম্পর্কে কম বেশি সকল ভারতীয়র জানা। সকলেই জানে যে সঙ্ঘ ধর্ম ও জাতির উপরে উঠে সমাজের উন্নতিরর জন্য কাজ করে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ায় সঙ্ঘের মূল লক্ষ্য। দেশের হিন্দুদের জন্য সঙ্ঘ যেমন কাজ করে তেমনি দরিদ্র মুসলিম এবং দলিতদের জন্য সমান ভাবে কাজ করে চলেছে সঙ্ঘ। এর জন্য আমরা সবাই সঙ্ঘকে ধনবাদ জানায়। এখন সঙ্ঘের এই সাফল্য শুধু দেশেই নয় বিদেশের মাটিতেও সমান ভাবে বিরাজমান।

এসরাম এন্ড এসরাম কম্পানির কথা এটি লন্ডনের একটি কম্পানি। এই কম্পানির মালিক শৈলেশ হিন্দু সমাজের জন্য এবং হিন্দু ধর্মের জন্য লাগাতার কাজ করে যান। এই কম্পানি কম্বোডিয়ার আসেপাশে মোটামুটি ১২ টি দেশে এগ্রো-প্রজেক্টের কাজ চালায়। মূলত এই কম্পানির মালিক শৈলেশের সহায়তায় সঙ্ঘ কম্বোডিয়াকে পঞ্চম ধাম হিসেবে প্রতিস্থিত করার চেস্টা করছে।

এই দেশে আনুমানিক ৯০% বৌদ্ধ ধর্মের মানুষ বসবাস করেন। এবং কম্বোডিয়ায় বিশ্ব বিখ্যাত অঙ্কোরভাট মন্দির আছে যেখানে হিন্দু ও বৌদ্ধ ধর্মের মানুষের এক বিরাট মেলবন্ধন দেখা যায়। তারা এই এলাকাজুড়ে মিলেমিশে একে অপরকে সাহায্য করার মাধ্যমে এক সুন্দর দৃস্টিনন্দন পরিবেশ গড়ে তুলেছেন।আরএসএস রাষ্ট্রীয় সংযোজক ইন্দ্রেশ কুমার বলেন,অঙ্কোরভাট মন্দিরের জন্য কম্বোডিয়াকে হিন্দুদের পঞ্চম ধামের স্বীকৃতি অবশ্যই দেওয়া উচিৎ। এটা খুবই ভালো ব্যাপার যে আরএসএস এর মতো সংগঠন ভারতের বাইরে হিন্দুধর্মের জন্য সক্রিয়ভাবে কাজ করছে।

[sg_popup id=”1″ event=”onload”][/sg_popup]

News-source

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.