Press "Enter" to skip to content

বিপ্লবের নামে হিন্দু গণহত্যা? শহীদের তালিকা থেকে মুছতে চলেছে ৩৮৭ মোপলা মুসলিমের নাম

তিরুবন্তপুরমঃস্বাধীনতা সংগ্রামীদের তালিকা থেকে ৩৮৭টি নাম সরিয়ে দেওয়ার পর রাজনৈতিক তরজা শুরু হয়েছে। ের বিরোধী নেতা বিডি সতিশন সোমবার এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে কেন্দ্র সরকারের তীব্র সমালোচনা করেছেন। তিনি বলেছেন, ১৯২১ সালে মালাবারে হওয়া মোপলা বিদ্রোহতে অংশ নেওয়া ৩৮৭ জন ের নাম স্বাধীনতা সংগ্রামীদের তালিকা থেকে সরিয়ে দেওয়া ইতিহাসের সবথেকে বড় অন্যায়।

সতিশন বলেছেন, ‘এই দেশের ইতিহাসের সবথেকে বড় শত্রু হল সঙ্ঘ পরিবার। অন্য স্বৈরাচারী শাসকের মতোই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও ইতিহাসে কাটছাঁট করে নিজের নয়া ইতিহাস লেখার চেষ্টা করছেন।”

বলে দিই, ১৯২১ সালে ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে কেরলের মোপলা মুসলিমরা সশস্ত্র বিদ্রোহের ডাক দিয়েছিল। এই বিদ্রোহ ৬ মাস ধরে চলেছিল। আর কমপক্ষে ১০ হাজার মানুষের প্রাণ গিয়েছিল। আরএসএস দীর্ঘদিন ধরেই এই ইস্যু নিয়ে সরব হয়ে আসছে। তাঁদের মতে এটা কোনও স্বাধীনতা সংগ্রাম ছিল না, এটা সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা ছিল যেখানে মুসলিমরা হিন্দুদের নিশানা বানিয়েছিল।

https://platform.twitter.com/widgets.js

সতিশন ফেসবুকে একটি পোস্ট করে লিখেছেন, ‘বিরিয়ামকুণাথ কুনজাহমদ হাজি একজন বীর যোদ্ধা ছিলেন। যিনি নির্ভীক হয়ে ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ লড়েছিলেন। ইতিহাসে ওনার নাম এক বীর ও নির্ভীক যোদ্ধা হিসেবে দায়ের রয়েছে। ওনাকে ব্রিটিশ সরকার মৃত্যুর সাজা দিয়েছিল। ওনার ফাঁসির সময় ব্রিটিশরা ওনার চোখ কাপড় দিয়ে পর্যন্ত ঢাকেনি।” বলে দিই, এই মোপলা বিদ্রোহ বিরিয়ামকুণাথ কুনজাহমদ হাজির নেতৃত্বে হয়েছিল।

সতিশন আরও বলেন, যেই মানুষরা সেই সময় ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রীয় আন্দোলন খারিজ করে দিয়েছিল, আজ তাঁরাই আমাদের গর্বিত ইতিহাসে কাটছাঁট করছে।