Press "Enter" to skip to content

বিপ্লবের রাজ্য ত্রিপুরাতেও খেলা হবে দিবস পালন করবে তৃণমূল

কলকাতাঃ একুশে জুলাই শহীদ দিবসের দিনে দলনেত্রী মমতা ার্জী (Mamata Banerjee) রাজ্যে ‘খেলা হবে” দিবসের দিন ঘোষণা করেছিলেন। ১৫ই আগস্ট স্বাধীনতা দিবসের ঠিক পরের দিনই রাজ্য জুড়ে খেলা হবে দিবস পালনের ঘোষণা করেছিলেন তিনি। আর এবার সেই খেলা হবে দিবস ছাড়িয়ে ত্রিপুরাতেও পালিত হতে চলেছে। ১৬ই আগস্ট বাংলার পাশাপাশি এবার বিপ্লব দেবের রাজ্য ত্রিপুরাতেও পালিত হবে খেলা হবে দিবস। ির রাজ্যে ঘাসফুলের চাষ করতেই নয়া কৌশল তৃণমূলের।

সম্প্রতি ত্রিপুরায় ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোরের (Prashant Kishor) আই প্যাকের (I-Pac) টিমকে হোটেলে আটকে রাখার প্রতিবাদেই তৃণমূল ওই রাজ্যেও খেলা হবে দিবস পালনের জন্য তৎপর হয়েছে হয়ত। একদিন আগে ত্রিপুরার রাজধানী আগরতলার হোটেলে তৃণমূলের শক্তি খতিয়ে দেখতে যাওয়া পিকের আই প্যাকের ২৩ সদস্যের দলকে হোটেলে আটকে রাখার অভিযোগ উঠেছে পুলিশের বিরুদ্ধে।

যদিও, পুলিশ আর স্্থ্য বিভাগের তরফ থেকে স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়া হয়েছে যে, করোনার প্রটোকল ভাঙার কারণেই তাঁদের হোটেলে থাকতে বলে হয়েছে। ত্রিপুরার পুলিশের মতে, বাইরের রাজ্য থেকে আসা বহিরাগতদের কাছে করোনা নেগেটিভের রিপোর্ট ছিল না। আর এই কারণেই তাঁদের করোনার পরীক্ষা করানো হয়। সেই রিপোর্ট আসা না পর্যন্ত তাঁদের হোটেলেই থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

যদিও, এই বিষয়ে তৃণমূল আর বিজেপির মধ্যে রাজনৈতিক তরজা শুরু হয়েছে। তৃণমূলের দাবি, বিজেপি তথা বিপ্লব সরকার তৃণমূলের উত্থানকে ভয় পেয়েই আই প্যাকের সদস্যদের হোটেলে আটকে রেখেছে। আরেকদিকে, বিজেপির দাবি, এখানে রাজনীতির কোনও প্রশ্নই আসে না। কারণ ওই ২৩ জনের মধ্যে অনেকেই ভিন রাজ্য থেকে ত্রিপুরায় এসেছে। সেই কারণে তাঁদের রিপোর্ট নেগেটিভ না আসা পর্যন্ত ওই হোটেলেই থাকতে হবে, নতুবা ফিরে যেতে হবে।