Press "Enter" to skip to content

বিশাল কেলেঙ্কারিতে ফাঁসলেন বলিউডের ভাইজান, বরবাদ হয়ে যেতে পারে সালমান খানের কেরিয়ার

[ad_1]

মুম্বইঃ সালমান খানের সঙ্গে তার প্রতিবেশী কেতন কক্করের বিরোধ দিন দিন বাড়ছে। সালমান কেতনের বিরুদ্ধে মানহানির মামলাও করেছেন, যার শুনানি চলছে আদালতে। ঘটনাটি হল, কেতন একজন এনআরআই যিনি এখন পানভেলে সালমানের ফার্মহাউসের কাছে থাকেন। সালমানের বিরুদ্ধে অনেক গুরুতর অভিযোগ করেছেন তিনি। আসুন জেনে নেওয়া যাক সালমানের বিরুদ্ধে কেতন কী অভিযোগ করেছেন।

কেতন কক্কর সালমানের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন যে, সালমানের পানভেল ফার্মহাউসে পার্টি হতো যেখানে অভিনেতাদের আমন্ত্রণ জানানো হত। সেই অভিনেতাদের পরে সেখানে খুন করে তাদের লাশ কবর দেওয়া হয়। তিনি বলেন, আজও সেখানে অভিনেতাদের মৃতদেহ কবর দেওয়া হয়।

সালমানের প্রতিবেশী কেতন অভিনেতার বিরুদ্ধে শিশু পাচারের গুরুতর অভিযোগ তুলেছেন। তিনি বলেন, সালমান তার ফার্ম হাউস থেকে শিশুদের পাচারও করেন, যার মাধ্যমে তিনি প্রচুর অর্থ উপার্জন করেন।

অভিনেতা ডি-গ্যাংয়ের সাথে যুক্ত হওয়ার কথাও বলেছেন কেতন। তাঁর অভিযোগ, সালমান শুধুমাত্র ডি-গ্যাং-এর সঙ্গে যুক্ত থাকার কারণেই ইন্ডাস্ট্রিতে নিজের ছাপ ফেলতে পেরেছেন। সে মানুষকে ভয় দেখায় যাতে তার সামনে কেউ কথা বলতে না পারে। ডি-গ্যাং-এর পাশাপাশি রাজ্য সরকারের বড় নেতাদের সঙ্গেও সালমান খানের সম্পর্ক রয়েছে বলে জানিয়েছেন তাঁর প্রতিবেশী। কেতনের মতে, রাজ্য সরকারেও শাসন করতে চান সালমান।

অভিনেতার বিরুদ্ধে কেতন তাঁর সম্পত্তি দখলের অভিযোগও তুলেছেন। অর্পিতার ফার্মহাউসের পাশেই কেতনের ফার্মহাউস, যার কিছু অংশ সালমান তার সম্পত্তিতে মিশ্রিত করেছেন এবং তিনি তাকে সেখানে নির্মাণ করতেও দিচ্ছেন না বলে জানিয়েছেন কেতন।

এখন সবথেকে বড় বিষয় হল, বলিউডের ভাইজান সালমান খানের বিরুদ্ধে করা কেতন কক্করের অভিযোগ যদি সত্যি প্রমাণিত হয়, তাহলে ভাইজান বড়সড় বিপদে পড়বেন। এমনকি ওনার কেরিয়ারও ধ্বংস হয়ে যাবে বলে আশঙ্কা ওয়াকিবহাল মহলের।

[ad_2]