Press "Enter" to skip to content

বিশ্বে আল্লাহর সার্বভৌমত্ব কায়েম করতে হবে, IAS আধিকারিকের বিরুদ্ধে ধর্মান্তকরণের অভিযোগ! ভিডিও ভাইরাল

[ad_1]

লখনউঃ উত্তর প্রদেশ প্রশাসনের বরিষ্ঠ IAS আধিকারিক মোহম্মদ ইফতিখারুদ্দিনের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হচ্ছে। ভিডিওতে IAS আধিকারিককে সরকারি আবাসে কট্টরতার পাঠ পড়াতে দেখা যাচ্ছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল এই ভিডিও মুখ্যমন্ত্রী যোগীর দফতরে পর্যন্ত পৌঁছে গিয়েছে। ইউপি পুলিশ ওই ভাইরাল ভিডিওর তদন্ত করার নির্দেশ দিয়েছে।

ভাইরাল ভিডিওতে আইএএস আধিকারিক ইফতিখারুদ্দিনকে নিজের সরকারি বাসভবনে কয়েকজন মুসলিম ধর্মগুরুর সাথে দেখা যাচ্ছে। আইএএস আধিকারিককে বলতে শোনা যাচ্ছে যে, বিশ্ববাসীর কাছে ঘোষণা করুন আল্লাহর সার্বভৌমত্ব ও কর্তৃত্ব সমগ্র বিশ্বে প্রতিষ্ঠিত হবে। বলে দিই, আমাদের পক্ষে ওই ভিডিওর সত্যতা যাচাই করা সম্ভব হয়নি।

উত্তর প্রদেশের সিনিয়ার আইএএস আধিকারিক ইফতিখারুদ্দিনের ওই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় তুমুল হারে ভাইরাল হচ্ছে। জানা গিয়েছে যে, ইফতিখারুদ্দিন যখন কানপুরের কমিশনার ছিলেন, এই ভিডিও তখনকারর। তিনি মৌলানাদের নিজের সরকারি বাসভবনে ডেকে এই পাঠশালার আয়োজন করতেন।

https://platform.twitter.com/widgets.js

ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর সিনিয়ার আইএএস আধিকারিক ইফতিখারুদ্দিনের অভিযোগ মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের কাছে পৌঁছে গিয়েছে। এখন এটাও অভিযোগ উঠেছে যে, ইফতিখারুদ্দিন নিজের পদে থাকাকালীন কট্টরতার পাশাপাশি ধর্মান্তকরণও করাতেন।

আরেকটি ভিডিওতে এক ধর্মগুরুকে একটি গল্প শোনাতে দেখা যাচ্ছে। সেখানে তিনি হিন্দুদের শেষকৃত্য নিয়ে কথা বলছেন। সেখানে আইএএস অফিসার ইফতিখারুদ্দিনকেও দেখা যাচ্ছে। ধর্মগুরু বলছেন, মৃত্যুর পর মা-বোনদের জ্বালিয়ে দেওয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে এক হিন্দু ইসলাম ধর্ম আপন করে নেন। এই গোটা ঘটনায় উত্তর প্রদেশের উপ মুখ্যমন্ত্রী কেশব প্রসাদ মৌর্য বলেন, এটা একটা গম্ভীর বিষয়। এরকম কিছু হলে কড়া পদক্ষেপ নিতে হবে।

[ad_2]