Press "Enter" to skip to content

বেরিয়ে এলো রিপোর্টকার্ড!! কর্নাটকে বিজেপির সবথেকে বড়ো প্রচারক কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী।

কর্নাটকে বড়ো জয় হয়েছে সেই সাথে ভারতের হিন্দু সমাজেরও একটা বড়ো জয় হয়েছে। কারণ এই জয় প্রমান করেছে, যে বা যারা হিন্দু সমাজকে ভাঙার চেষ্টা করবে জনগণ তাদের পাল্টা জবাব দেবে। আপনাদের জানিয়ে রাখি কর্নাটকে কংগ্রেস ও বিজেপি উভয়েই নির্বাচনের প্রচারের উপর জোর দিয়েছিল।

নির্বাচনের কয়েকমাস আগে থেকেই রাহুল ও মঠগুলিতে যাওয়া শুরু করে দিয়েছিল এবং কর্ণাটকের বড়ো বড়ো আসনগুলিতে বার বার প্রচারে গিয়ে টানার চেষ্টা করেছিল। অন্যদিকে বিজেপি প্রথমদিকে ভোটপ্রচারে না নামলেও অমিত শাহজি, শেষদিকে বিজেপির দুই নরেন্দ্র মোদী ও যোগী আদিত্যনাথকে প্রচারে নামিয়েছিলেন।

এখন সমস্থকিছু সম্পন্ন হওয়ার পর একটা রিপোর্ট বেরিয়ে এসেছে যেখানে দেখোন হয়েছে কোনো নেতা কর্ণাটক প্রচার সব থেকে বেশি সফল হয়েছেন এবং কোন নেতার প্রচার কর্নাটকে প্রভাব ফেলতে পারেনি।

রিপোর্টকার্ড অনুযায়ী, আপনাদের জানিয়ে রাখি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী কর্নাটকে যে ৩৫ টি আসনে রালি করেছিলেন সেই আসনের প্রত্যেকটি আসনে বিজেপি জয় লাভ করেছে।
অন্যদিকে নরেন্দ্র মোদীজি ২১ টি কঠিন আসনে রালি করে যার মধ্যে ১৩ টিতে বিজেপি জয় লাভ করে।
এখন আপনারা হয়তো ভাববেন মোদীজি বা যোগীজি কর্ণাটকে সব থেকে বড়ো প্রচারক ছিলেন। কিন্তু আরো একজন রয়েছেন যিনি যোগীজি ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর থেকেও বড়ো প্রচারক হিসেবে সামনে এসেছেন।

আমরা কথা বলছি রাহুল গান্ধীর যিনি কর্নাটকে সব থেকে বেশি পরিশ্রম করেছেন এবং সবথেকে বেশি প্রচার করেছেন। তবে পরিশ্রমটা কংগ্রেসের জন্য করলেও লাভবান হয়েছে বিজেপি পার্টি। কারণ রাহুল গান্ধীর বেবুনিয়াদি ভাষণে মানুষ তিক্ত হয়ে উল্টে বিজেপিতেই ভোট দিয়েছেন। তবে একথা আমরা বলছি না। এটা বলছে রিপোর্ট। রাহুল গান্ধী কর্নাটকে ৪৭ টি আসনে রালি করেছিলেন যার মধ্যে ৪১ টি আসনে বিজেপি জয় লাভ করেছে এবং মাত্র ৬ টি আসনে কংগ্রেস জয় লাভ করেছে।

অর্থাৎ কংগ্রেস পার্টি তাদের নিজেদের অর্থ খরচ করে বিজেপিকে জয় লাভ করিয়ে দিয়েছে। আর সেই কারণেই কর্ণাটকের মানুষ বিজেপির সবথেকে বড়ো প্রচারক মোদী বা যোগীকে মানতে নারাজ। উল্টে তারা বিজেপির সবথেকে বড়ো প্রচারকের আসনে রাহুল গান্ধীকেই বসিয়েছেন।

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.