Press "Enter" to skip to content

বড় বিপদে আরব, বন্ধুদেশকে উদ্ধার করতে মাঠে নামতে চলেছে ভারত

[ad_1]

নয়া দিল্লিঃ ভারত গত এক দশকে মধ্যপ্রাচ্যে একটি গুরুত্বপূর্ণ পরিচয় তৈরি করেছে এবং এটি অত্যন্ত বড় বিষয়। বিশেষ করে ভারতীয়রা যখন উপসাগরীয় দেশগুলির দিকে তাকায়, তখন UAE এমন একটি দেশ হিসাবে উঠে আসে যার সাথে ভারতের বাণিজ্য এবং ভারতের কূটনৈতিক সম্পর্ক খুব ভাল। আজ এই দেশটি খুব দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে কিন্তু এখন দেখা যাচ্ছে এর উপর গ্রহন লেগেছে, সম্প্রতি এমনই খবর আসছে।

বিভিন্ন রিপোর্ট অনুযায়ী, আগামী বছর সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিরুদ্ধে তদন্ত হতে পারে এবং তারপরে FATF পদক্ষেপ নিয়ে এই দেশটিকে ধূসর তালিকায় ফেলতে পারে। এমনটা হলে দুবাইয়ের মুদ্রার মূল্য অনেকটাই কমে যেতে পারে এবং এর ফলে ওই দেশে আর্থিক সমস্যা দেখা দিতে পারে।

যখনই কোনও দেশকে ধূসর তালিকায় রাখা হয়, তখনই তাঁর বাণিজ্য অর্থাৎ আমদানি-রপ্তানি মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। বিনিয়োগকারীরাও সে দেশে অর্থ বিনিয়োগ করা থেকে এড়িয়ে যায় এবং ধীরে ধীরে সেই দেশ দারিদ্র্যের দিকে যেতে শুরু করে। সম্প্রতি পাকিস্তান ও তুরস্ককে ধূসর তালিকায় রাখা হয়েছে যার পর তাঁদের মুদ্রার মান সর্বনিম্ন পর্যায়ে চলে গিয়েছে। সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিরুদ্ধে আর্থিক তছরুপের অভিযোগ উঠেছে। আর এই অভিযোগ সত্য প্রমাণিত হলে, তাঁদের উপর শাস্তির খাড়া নেমে আসতে পারে।

এখন এমন সময়ে শুধুমাত্র ভারত, আমেরিকা এবং ইসরায়েলের মতো দেশ আছে যারা তাঁদের কূটনৈতিক শক্তির প্রয়োগ করে সংযুক্ত আরব আমিরাতকে এই তালিকায় যাওয়া থেকে বাঁচাতে পারে। সূত্র মতে, সংযুক্ত আরব আমিরাতে বন্ধুত্বপূর্ণ দেশগুলির সঙ্গে যোগাযোগ করা এবং এই তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হওয়ার থেকে নিজেকে বাঁচানোর বিষয়টি নিয়ে ইতিমধ্যেই আলোচনা শুরু হয়েছে।

এখন এটা ভারতের উপরও নির্ভর করবে যে, ভারত যখন FATF মিটিং করে, তখন তাঁরা নিজেদের পক্ষ থেকে কোনো মতামত রাখবে কী না। দুবাইয়ের মতো জায়গা এই ধূসর তালিকার বাইরে থাকলে ভারতের অনেক সুবিধা হতে পারে। আর এটিও সম্ভব যে, ভারত সংযুক্ত আরব আমিরাতকে সাহায্য করবে।

[ad_2]